Main Menu

কসবায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মাঝে বিক্ষোভ : ১ বিএনপির কর্মী গ্রেফতার

+100%-


খ.ম.হারুনুর রশীদ ঢালী: টানা ৪৮ ঘন্টার অবরোধ কর্মসূচির প্রথম দিন মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটেছে।
অবরোধের দ্বিতীয় দিনে কসবা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা মহসড়ক ও ডিসি রোড গাছ ফেলে অবরোধ করার ফলে জনজীবন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। দুপুরে কুটি চৌমুহনি বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশ  নুরু নবী পিতা মাতু মিয়া গ্রাম বুগী গ্রামের  বিএনপির কমী গ্রেফতার করে।
কসবা-আখাউড়া রাস্তা.কদমতুলি-নয়নপুর রাস্তা, কদমতুলী থেকে সৈয়দাবাদ রাস্তায় কয়েক লক্ষ টাকার সরকারী গাছ কেটে ফেলে অবরোধ করার ফলে সকল যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।
আজ বুধবার সকালে কসবা উপজেলার কায়েমপুর ইউপির নোয়াগাও, আড়াইবাড়ি, শান্তীপুর, তিনলাখপুর, গোপীনাথপুর, নোয়াপাড়া, নয়নপুর, খাড়েরা মোড়ে পৃথক পৃথক ভাবে বিএনপি ও জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।  সমাবেশ চলাকালে এরশাদের টাঙ্গানো একটি ফ্যাস্টুন ভাংচুর করা হয়।
কসবা উপজেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি হাফেজ নুরুল আমিনের নেতৃত্বে একটি মিছিল বের করে। এই দিকে ২/৩ স্থানে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে।
আজ বুধবার সকালে কায়েমপুর ইউপি বিএনপির সভাপতি কাজী আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা জামায়েত সেক্রেটারী আল আমীনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির নেতা মোখলেছুর রহমান, ছাত্র শিবির নেতা কাজল, কামাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে বক্তারা, নির্বাচন কমিশন আগামী ১০ম জাতীয় নির্বাচনের যে তফসিল ঘোষনা করেছে। সে নির্বাচন আমরা যে কোন মূল্যে প্রতিহত করবো। অবিলম্বে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবী মেনে নিয়ে একটি অবাধ সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করার আহবান জানান তারা।
গাছ কেটে রাস্তায় ফেলানোর ফলে সকল প্রকার যান বাহনসহ পথযাত্রী, অসুস্থরোগীরা পর্যন্ত চলাচল করতে পারেনি বলে ভুক্তভোগিরা জানান।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares