Main Menu

সমাজ পরিবর্তনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে – জেলা প্রশাসক

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় দাঙ্গায় প্রথম সরাইল। এর জন্য দায়ী স্থানীয় কিছু জনপ্রতিনিধি ও বাণিজ্যিক সালিশকারক। নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য তারা পেছন থেকে ইন্ধন দিয়ে লোকজনকে দাঙ্গা হাঙ্গামায় ঠেলে দেয়। পরে তারা পুলিশের সাথে মিলে দালালীর মাধ্যমে ফায়দা লুটে। এদের আর কোন কাজ নেই। মাদক সমাজের জন্য বিপদ জনক। মদ পান করে কিছু লোক সমাজে অনাচার ও ব্যবিচারে লিপ্ত হয়। বেড়ে যায় ছুরি ছিনতাই ডাকাতী ও ধর্ষন। অতএব মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের সাথে কোন আপোষ নেই। যতবার তারা জামিনে আসবে ততবারই তাদেরকে ধরে চালান দিতে হবে। প্রয়োজনে নির্বাহী কর্মকর্তা মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাদের কারাদন্ড দিবেন। শিক্ষকদের উদ্যেশ্যে তিনি বলেন, পাঠশালা উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়েছিলাম। টয়লেট থেকে শুরু করে সবকিছুই নোংরা। পড়া লেখার কোন পরিবেশ নেই। মাঠে ও কাঁদা। শিক্ষকরা শুধু আসে আর যায়। এ চিত্র এখানকার প্রায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেরই। শিক্ষা ব্যবস্থা এ ভাবে চলতে পারে না। মসজিদের ইমামদের উদ্যেশ্যে জেলা প্রশাসক বলেন, দয়া করে মসজিদে খুতবার আগে গতানুগতিক ওয়াজ না করে ছেলে মেয়েদের প্রতি খেয়াল রেখে সত্যিকারের মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার বিষয়ে বক্তব্য রাখুন। তাদের চলাফেলা ও আচার ব্যবহারের প্রতি সজাগ দৃষ্টি রাখুন। সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি প্রতিহত করার ব্যবস্থা নিন। জনপ্রতিনিধি সহ সকলকে এ সব কাজে ভূমিকা রাখতে হবে। মনে রাখবেন সমাজ পরিবর্তনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। রোববার সকালে উপজেলার কালীকচ্ছ ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে এলাকার দাঙ্গা হাঙ্গামা রোধ ও আইন- শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়ন বিষয়ে মত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোল্লেখিত কথা গুলো বলেছেন জেলা প্রশাসক নূর মোহাম্মদ মজুমদার। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরান হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন চেয়ারম্যান মোঃ তকদির হোসেন। এ ছাড়া সকল ইউপি সদস্য সদস্যা স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ সভায় উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares