Main Menu

নারীরা আজ দেশের অন্যতম রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক শক্তি রুপে প্রতিষ্ঠিত: মোকতাদির চৌধুরী এমপি

+100%-

প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর আসনের সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির অন্যতম নেতা, বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন, সারা বিশ্বের প্রতিটি মানুষ আজ নারীর অধিকার আর মর্যাদা সম্পর্কে সচেতন। তাই তারা আজ দেশের অন্যতম রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক শক্তি রুপে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমাদের নারীরা এখন লেখাপড়া করে, তারা এখন শিক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার। রাষ্ট্র পরিচালনার গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক পদেও রয়েছে তাদের অংশগ্রহন, সমাজ উন্নয়নে তাদের রয়েছে বিরাট ভূমিকা। দেশে অসংখ্য নারী শ্রমিক রয়েছে যারা সমৃদ্ধ করেছে পারিবারিক ও রাষ্ট্রীয় অর্থনীতিকে।



মোকতাদির চৌধুরী এমপি বৃহস্পতিবার বিকালে সুরসম্্রাট ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ পৌর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত বিশ্ব নারী দিবস ২০১৪ উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার উদ্যোগে আয়োজিত র‌্যালী, তৃনমূল নারী সংগঠকদের সংবর্ধনা, আলোচনা সভা ও সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার নারীর অধিকার এবং মর্যাদাকে সু প্রতিষ্ঠিত করার ল্েয বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে। বিনা মূল্যে শিা উপকরণ ও উপবৃত্তি প্রদানের ব্যবস্থা করেছে। সমস্ত নারী নির্যাতন প্রতিরোধে কঠোর আইন প্রণয়ন প্রয়োগের ব্যবস্থা করেছে। নারীদের কোটা সংরণের সরকারী বে-সরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরীর সুযোগ এবং পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। নারীর মতায়ন নিশ্চিত করার ল্েয ইউনিয়ন, পৌরসভা উপজেলা এবং সংসদে নারীদের অংশগ্রহনকে নিশ্চত করা হয়েছে। দেশের দরিদ্র অসহায় ও অসচেতন নারীদের জন্য ভিজিএফ, কাবিখা প্রকল্প, প্রতিবন্ধী ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা চালু করেছে। তাদের স্বাস্থ্য সুরায় সরকারী বে-সরকারী চিকিৎসা ব্যবস্থায় পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা প্রদান কার হচ্ছে।


তিনি বলেন সরকারি এ সমস্ত প্রকল্পরে সুবিধা নিয়ে নারী আজ একটি শক্তি রুপে প্রতিষ্ঠত হয়েছে। দেশের নারী সমাজ আজ ঘরের বোঁঝা নয়, তারা ঘরের শোভা। তারা এখন দেশের অর্থনীতি ও রাজনীতির অন্যতম শক্তি। অনুষ্ঠানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন এর সভাপত্তিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন, জেলা পরিষদ প্রশাসক, এডঃ সৈয়দ এ.কে.এম.এমদাদুল বারী, পুলিশ সুপার মোঃ মনিরুজ্জামান পিপিএম (বার), জেলা আওয়ামীলীগও ১৪ দলের সমন্বয়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আমানুল হক সেন্টু, পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, ব্রহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর অমৃত লাল সাহা।

অনুষ্ঠানে ইউজিপ-টু প্রকল্পের ফ্যাসিলেটর ফারহানা তাহির এর পরিচালনায় সভায় অন্যানের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নারী নেত্রী এড. তসলিমা সুলতানা খানম নিশাত। অনুষ্ঠান সম্বমনয় করেন বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে পৌর মেয়র বলেন, সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পর সহায়তা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা নারীদের অধিকার ও মর্যাদা এবং নারী-পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠা করার ল্েয বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহন করে আসছে। পৌরসভা ইউজিপ-২ প্রকল্পের আওতায় জেন্ডার এ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়ন করার ল্েয বিভিন্ন পদপে বাস্তবায়ন কর হচ্ছে। সিধান্ত গ্রহনে নারীর মতামতকে মূল্যায়ন করার ল্েয তাদেরকে আমরা টিএলসিসির সদস্য নির্বাচিত করেছি। অসহায় নারীদেরকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার জন্য আমরা তাদের মাঝে ুদ্র ঋণ বিতরন, সেলাই প্রশিণ, বিউটি পার্লৃার প্রশিণসহ বিভিন্ন প্রশিনের ব্যবস্থা করে থাকি। এছাড়া নারীদেকে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং শিক্ষা, স্বাস্থ্য. স্যানিটেশন-সহ বিভিন্ন বিষয়ে সচেতন করার ল্েয আমরা পৌরসভার বিাভিন্ন ওয়ার্ডে উঠান বৈঠকের আয়োজন করে থাকি। এ সমস্ত কার্যক্রমের মাধ্যমে আমরা নারীদের মতামত নিয়ে আমরা তাদের বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করে তা সমাধানের ব্যবস্থা করে থাকি।বক্তবে মেয়র পৌরসভার এসমস্ত কার্যক্রমে সকল কে সহযোগিতার অহবান জানান।

অনুষ্ঠানে ১০ জন তৃনমূল নারী সংগঠক কে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।পরে বরেণ্য শিল্পিদের পরিবশেনায় মনোমুগ্ধ সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। অনুষ্ঠানে কয়েক শতাধীক নারী ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী বৃন্দ,  বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares