Main Menu

জাপাকে ৬১ আসন ছেড়ে সমঝোতা। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও ৩ জাপার মনোনীত প্রাথী মহাজোটের

+100%-

* গণভবনে শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ‘মহাজোট’ বৈঠক  * অন্য শরিকদের ১২ আসন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও ৩ জাপার মনোনীত প্রাথী মহাজোটের



ডেস্ক ২৪ :দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন ভাগাভাগি নিয়ে ‘মহাজোট’ শরিকদের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে গণভবনে এক অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে আসন ভাগাভাগি চূড়ান্ত করা হয়। এর মধ্য দিয়ে জাতীয় পার্টিকে নির্বাচনে আনার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত রূপ পেল। জাতীয় পার্টিকে ৬১টি আসন ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

বৈঠকে উপস্থিত আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ১৪ দলের প্রভাবশালী এক নেতাও নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তাঁরা জানান, আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় পার্টির সঙ্গে পৃথক বৈঠক করে আসন ভাগাভাগি-সংক্রান্ত অন্যান্য বিষয়ের নিষ্পত্তি হবে।

বৈঠক সূত্র জানায়, জাতীয় পার্টির সঙ্গে ৬১টি আসনে রফা হয়েছে। ওয়ার্কার্স পার্টি চার, জাসদ চার, তরিকত ফেডারেশন দুই ও জাতীয় পার্টিকে (মঞ্জু) দুটি আসন ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। এ বণ্টনে সবাই সন্তুষ্ট। জাতীয় পার্টি ছাড়া অন্য দলগুলোকে আসন ভাগাভাগির চিঠি ইস্যু করা হয়েছে। জাতীয় পার্টির সঙ্গে এ ব্যাপারে আজ বৈঠক করে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সমস্যার সমাধান করা হবে।

বৈঠকে আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, বেগম মতিয়া চৌধুরী, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, মাহবুব-উল-আলম হানিফ, ড. হাছান মাহমুদ ও মুজিবুল হক। এ ছাড়া জাতীয় পার্টির আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জিয়াউদ্দিন বাবলু, ওয়ার্র্কার্স পার্টির রাশেদ খান মেনন, জাসদের হাসানুল হক ইনু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র জানায়, গত সোমবার জাতীয় পার্টির একটি প্রতিনিধিদল গণভবনে গিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে। তারা নির্দিষ্ট সংখ্যক আসন চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তালিকা পেশ করে। এরই অংশ হিসেবে গতকাল আসন নিয়ে রফা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বৈঠকে উপস্থিত এক নেতা কালের কণ্ঠকে বলেন, জাতীয় পার্টির সঙ্গে দূরত্ব খুব শিগগির কমে যাবে। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।

এদিকে একটি সূত্র নিশ্চিত করে, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরাজমান রাজনৈতিক সমস্যা সমাধানের বিষয়ে হতাশা ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, যা হবে সংবিধানের ভেতরে থেকেই হবে। সংবিধানের বাইরে গিয়ে কোনো সমাধান হবে না বলে বৈঠকে উপস্থিত নেতারাও মত দেন। সমঝোতা ও সংলাপের ভবিষ্যৎ নিয়ে বৈঠকে গভীর হতাশা প্রকাশ করা হয়।

জাতীয় পার্টির ৬১ আসন : গত রাতে ৫৭টি আসন সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে জানা গেছে। আসনগুলো হলো- দিনাজপুর-৬, ঠাকুরগাঁও-৩, নীলফামারী-৩ ও ৪, লালমনিরহাট-৩, রংপুর-১, ২ ও ৩, কুড়িগ্রাম-১, ২ ও ৩, গাইবান্ধা-২ ও ৩, জয়পুরহাট-১, বগুড়া-২, ৩, ৪ ও ৬, খুলনা-১, পটুয়াখালী-১, বরিশাল-৩ ও ৪, সাতক্ষীরা-২ ও ৪, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও ৩, মৌলভীবাজার-২, হবিগঞ্জ-১, সিলেট-২ ও ৫, সুনামগঞ্জ-৪, নারায়ণগঞ্জ-৩ ও ৫, ঢাকা-১, ৪ ও ৬, কিশোরগঞ্জ-৩, ময়মনসিংহ-৪, ৫, ৭ ও ৮, জামালপুর-৪, টাঙ্গাইল-৫, কুমিল্লা-২, ৩, ৪ ও ৮, চাঁদপুর-৪, ফেনী-৩, লক্ষ্মীপুর-২, চট্টগ্রাম-৫, ৯ ও ১৬, কক্সবাজার-১ ও ২ এবং খাগড়াছড়ি। চারটি আসন সম্পর্কে জানা যায়নি।

গত নির্বাচনে তিনটি আসন পেয়েছিল জাসদ; এবার যোগ হয়েছে ফেনী-১। এ আসনে প্রার্থী হচ্ছেন শিরীন আক্তার। ওয়ার্কার্স পার্টি গত নির্বাচনে চারটি আসনে নির্বাচন করেছিল; এবারও চারটি পেয়েছে।সূত্র : http://www.teknafnews.com






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares