Main Menu

নাসিরনগরে বিজেপির অবরোধ কর্মসূচী পালিত

+100%-

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঃ ১৮ দলীয় জোটের ৫৯ ঘন্টার অবরোধ কর্মসূচী অংশ হিসাবে বৃহস্পতিবার শেষ দিন নির্দলীয় তত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে,১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের মুক্তি ও ঘোষনাকৃত তফছিল প্রত্যাহারের দাবীতে সকাল ১০ ঘটিকায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা বিজেপির বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে। কেন্দ্রীয় বিজেপির ভাইস চেয়ারম্যান, জেলা বিজেপির আহব্বায়ক, সারা বাংলাদেশের সফল উপজেলা চেয়ারম্যান হিসাবে চারটি স্বর্ণ ও ১১টি বিভিন্ন পদকে ভুষিত নাসিরনগর উপজেলা পরিষদের সফল চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আহসানুল হক মাষ্টারের নেতৃত্বে এক বিশাল মিছিল উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয় আধুনিক হাসপাতাল বটতলা মোড়ে এক প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। উপজেলা বিজেপির সভাপতি কাজী আনোয়ার হোসেনের সভাপত্বিতে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মোঃ আহসানুল হক মাষ্টার। অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ইসলামী ঐক্যজোটের সভাপতি মাওলানা মহি উদ্দিন, জাতীয় স্বেচ্ছা সেবক নেতা মোঃ ওয়ালি উল্লাহ টেনা মিয়া, বিজেপির অন্যতম নেতা মোঃ নেজামুল হক (ওরুপ), উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি মোঃ কামরুল হাসান খাঁন, বিজেপির অন্যতম নেতা সৈয়দ মিজানুর রহমান, মোঃ নুরুল ইসলাম বেনু মিয়া, উপজেলা ছাত্র সংহতির সভাপতি মীর সবুজ। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন উপজেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ বকুল হোসেন খাঁন। বক্তারা ১৮ দলীয় জোটের সকল নেতাদের মুক্তির দাবী, ঘোষনাকৃত তফছিল বাতিল,তত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে র্নিদলীয়, নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবী জানান। জানা গেছে বিজেপির মিছিল চলাকালীন সময়ে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম.এম হান্নানের নেতৃত্বে বিএনপির মিছিল বের হয়। স্থানীয় হাসপাতাল মোড়ে বিএনপির এম এ হান্নান বিজেপির মিছিল থেকে বিজেপির নেতা সৈয়দ মিজানকে চরতাপ্পর মারলে বিজেপি বিদ্রোহী কর্মীরা তাৎক্ষণিক এক লাঠি মিছিল বের করে হান্নানকে খুনি সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়ে তাকে গ্রেফতারের দাবীতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানান। পরে উপজেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ বকুল হোসেনের নেতৃত্বে  কুন্ডা ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে হান্নানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল বের হয়। এ বিষয়ে মোঃ আহসানুল হক জানান-আমার জনপ্রিয়তা ও আমার মিছিলে বিশাল লোকজনের সমাগম দেখে হান্নান তা সহ্য করতে না পেরে আমার কর্মীর গায়ে হাত দিয়েছে। মিছিলকারীরা অনতী বিলম্বে এম.এ হান্নানের গ্রেফতার দাবী করে।  






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares