Main Menu

সরাইলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ,ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ, সরাইল ॥ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ঘটেছে। শনিবার(২৪ফেব্রুয়ারী) বিকালে উপজেলা সদরে এ ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। জানা যায়, গত ৩১ জানুয়ারী জসিম খানকে আহবায়ক করে ৪৯ সদস্যের সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করেন জেলা ছাত্রলীগ। পরবর্তীতে সানা উল্লাহ সেলুকে আহ্বায়ক করে আর একটি পাল্টা কমিটি ঘোষনা করা হয়। এতে দু’পক্ষের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

শনিবার বিকালে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে নবগঠিত ছাত্রলীগের একাংশের পরিচিতি সমাবেশের কর্মসূচী দেয়(জসিম) নবগঠিত কমিটির নেতারা। এদিকে ছাত্রলীগ নেতা সানা উল্লাহ সেলু একই স্থানে পাল্টা সমাবেশ আহবান করে। এতে দুই পক্ষের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করলে আইন শৃংখলা রক্ষায় সরাইল উপজেলা প্রশাসন কালিকচ্ছ, নোয়াগাঁও ও সরাইল সদর ইউনিয়নে শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার রাত ১২টা র্পযন্ত ১৪৪ধারা জারি করে সব ধরনের সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষনা করেন।

শনিবার বিকালে বড্ডাপাড়া গরু বাজার মাঠে জসিম খানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা একত্রিত হয়ে একটি বিজয় মিছিল বের করে। অন্য দিকে নিজসরাইল ব্রিজের পাশে সানা উল্লাহ গিয়াস উদ্দিন সেলু ও ইশতিয়াক আহম্মেদ বাপ্পির নেতৃত্বে জড়ো হওয়া ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা সরাইল সদরে পাল্টা মিছিল বের করে।

সরাইল থানার সহকারী কমিশনার(ভ’মি) ও র্নিবাহী ম্যাজিষ্টেট মোঃ ইকবাল হোসেন ও সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মফিজ উদ্দিন ভ’ইয়ার নেত্বত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশের একটি দল উভয় পক্ষের মাঝে অবস্থান নেওয়ার সংঘর্ষ ব্যাপক আকরে পরিনত হতে পারেনি বলে এলাকাবাসি জানিয়েছেন। উক্ত মিছিলে বাধাঁ দেওয়ার চেষ্টা করে। এসময় দুই গ্রুপের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মিছিল করার ব্যাপারে জানতে চাইলে সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট মোঃ ইকবাল হোসেন বলেন বিষয়টি আমরা দেখছি কি করা যায় । পরে পুলিশ উভয় পক্ষের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় উপজেলা সদরের গুরুত্বপূর্ণস্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares