Main Menu

সরাইলে ইউএনও উম্মে ইসরাতকে বিদায়ী সংবর্ধণা সদ্যযোগদানকৃত ইউএনও এ এস এম মোসাকে বরণ করা হয়েছে

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ, সরাইল ॥ একজন ইউএনও উম্মে ইসরাত। সরাইলে কাজ করেছেন মাত্র দেড় বছর। বদলিজনিত কারনে তিনি চলে যাচ্ছেন অন্যত্র।
গত মঙ্গলবার রাত ৭টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে তার বিদায়ী ফুলেল সংবর্ধণা সভা পরিণত হয়েছিল মানুষের মিলন মেলায়। সকলের ভালবাসায় সিক্ত হয়েছেন তিনি। কর্মকালীন সময়ে এখানকার মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, উপজেলা পরিষদ,সাংবাদিক, সুশিল সমাজের লোকজনের ও সরাইল প্রেসক্লাবের সহযোগীতা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। বরণ করা হয়েছে সদ্যযোগদানকৃত ইউএনও এ এস এম মোসাকেও। সমাজসেবা কর্মকর্তা জহিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা।
মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রাশেদ আক্ষেপ করে বলেন, রাজাকারের উত্তরসূরির তদবিরে অফিসার বদলি হলে রাজনীতিতে আর কি থাকে? ভাইস চেয়ারম্যান ও যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শের আলম মিয়া একটি অনলাইন পোর্টাল ও ফেসবুকের একটি লেখায় দু:খ করে বলেন, এমন মিথ্যা বানোয়াট ও উদ্ভোট লেখা অশিক্ষিত মূর্খরা লিখে। আ’লীগের শীর্ষ নেতা ও বিতরণের জায়গার নাম নেই কেন? বিদেশে অবস্থান করছে মিষ্টি বিতরণে এমন শ্রমিকের নাম দেওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট রিপোর্টারের নাম উল্লেখ করে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আট শ্রেণির গন্ডি পার হতে পারেনি এমন সব লোকজন সরাইলে সাংবাদিক দাবী করে। উচ্চ শিক্ষিত, মেধাবী, একাধিক প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রকৃত সাংবাদিকরা আজ এদের কারনে বিব্রত। নাম সর্বস্ব পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে অবৈধ সুবিধা আদায়কারীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জোর দাবী জানিয়েছেন এ জনপ্রতিনিধি। সবশেষে বিদায়ী ইউএনও উম্মে ইসরাতকে সংগঠন ও ব্যক্তিবর্গ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। সেই সাথে সরাইলের পরবর্তী পথচলা আরো মসৃন হওয়ার আশায় সদ্যযোগদানকৃত ইউএনও এ এস এম মোসাকে সকলে বরণ করে নেন।
বক্তব্য রাখেন- সরাইল কলেজের অধ্যক্ষ মৃধা আহমাদুল কামাল, সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বায়তুল হোসেন খন্দকার, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (সরাইল সার্কেল) মো. মনিরুজ্জামান ফকির, ভাইস চেয়ারম্যান মো. শের আলম মিয়া, অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মফিজ উদ্দিন ভূঁইয়া, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইসমত আলী, ডেপুটি কমান্ডার মো. আনোয়ার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও আ’লীগের যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট আবদুর রাশেদ, এ আই মনোয়ার উদ্দিন মদন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সহিদ খালিদ জামিল খান, সমবায় কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, ত্রীতালের অধ্যক্ষ সঞ্জিব কুমার দেবনাথ, সাবেক চেয়ারম্যান ও জাপা নেতা মো. হুমায়ুন কবির, ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার, রফিকুল ইসলাম খোকন, মো. শাহজাহান মিয়া, মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, যুবলীগের সাবেক আহবায়ক মো. মাহফুজ আলী, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. ইকবাল হোসেন, ক্রীড়া পরিষদ সদস্য এম এ মজিদ বক্স ও ইউপি সচিব ছালাহ উদ্দিন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares