Main Menu

আজ তিতাস নদীতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা

+100%-

আজ ১৪ জুলাই শুক্রবার তিতাস নদীর ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের শিমরাইলকান্দি শশ্মানঘাট থেকে মেড্ডা কালাগাজীর মাজার পর্যন্ত সীমানায় হবে এই নৌকাবাইচ। বেলা ২ টায় তিতাস নদীর  এ বাইচে জেলার ১৬ টি নৌকা অংশ নেবে বলে নিশ্চিত হয়েছেন আয়োজকরা।

এই নৌকাগুলো হচ্ছে নাসিরনগরের হরিপুরের ফারুক চেয়ারম্যানের নৌকা,কসবার বাদৈরের নৌকা,ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের বরিশল,দত্তখোলা,সরাইলের বুড্ডা বয়েজ ক্লাব,কুচনী বয়েজ ক্লাব,শাহবাজপুরের আরজ মেম্বারের ও লম্বাহাটির নৌকা,বিজয়নগরের কেনা একতা বয়েজ ক্লাবের ও শ্যামপুরের নৌকার নাম রয়েছে বাইচের প্রতিযোগি হিসেবে। ৬০ মাঝির নিচে কোন নৌকা নেয়া হচেছনা।জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু এ তথ্যটি নিশ্চিত করেন।

এতে প্রধান অতিথি থাকবেন আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক এম.পি, বিশেষ অতিথি থাকবেন পার্বত্য চট্রগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনারয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি, সংসদ সদস্য ফজিলাতন নেসা বাপ্পি , পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার), বিজিএফসিএল-এর ব্যস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ কামরুজ্জামান,ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা মেয়র মিসেস নায়ার কবির, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর আলম।
প্রতিযোগিতার সময় সার্বিক আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য জেলা পুলিশ, নৌপুলিশ, আনসার বাহিনী, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল, এম্বুলেন্স, মেডিকেল টিম দায়িত্ব পালন করবে। নৌকা বাইচের দিন সকাল ৬ টা থেকে বিকাল ৬ টা পর্যন্ত যেখানে বাইচ হবে সেই এলাকায় বাইচের নৌকা ছাড়া দর্র্শনার্থী কিংবা যাত্রীবাহী কোন নৌকা প্রবেশ করতে পারবে না। প্রতিযেগিতা মনিটরিং এর জন্য ১৬ টি ইঞ্জিন চালিত নৌকা ৫ টি স্পীড বেট এবং ২ টি রেসকিউ বোট রাখা হবে।

এদিকে এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতাকে কেন্দ্র করে শহরে বিরাজ করছে উৎসবমূখর পরিবেশ। বিশেষ করে তরুন শ্রেনীর মধ্যে এটা বেশী পরিলক্ষিত হচ্ছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares