Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছে তা কখনো ভুলতে পারব না: বিদায়ী পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান পিপিএম (বার)

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমানকে বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছেন আখাউড়া থানা পুলিশ। পুলিশ সংর্বধনার আয়োজন করলেও মানুষের ভিড়ে এক সময় তা গণসংর্বধনায় পরিণত হয়। ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ নামে খ্যাত পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমানকে আখাউড়াবাসী বিদায়ী ভালোবাসা আর ফুলেল শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসিয়ে দিয়েছেন। পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, আওয়ামীলীগ, পৌরসভা, শিক্ষক সমাজ, আখাউড়া প্রেসক্লাব থেকে শুরু করে সর্বস্তরের মানুষ অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান পিপিএম (বার)কে ফুলে ফুলে সিক্ত করে তুলেন।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন তরফদারের সভাপতিত্বে থানার মাঠে অনুষ্ঠিত বিদায়ী সংর্বধনা অনুষ্ঠানে ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (হেডকোর্য়াটার) মো: আবু সাইদ, কসবা-আখাউড়ার সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল করিম, আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন, আখাউড়া উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি জেসমিন সুলতানাসহ আখাউড়া উপজেলার সরকারী বেসরকারী অফিস, সংগঠন, সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংবাদিক, শিক্ষক সমাজের নেতৃবৃন্দরা।

পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান বলেছেন,আখাউড়া দেশের পবিত্র স্থানগুলোর মধ্যে অন্যতম। বাঙালী জাতীয়বাদ আর ধর্মীয় ভাবে পবিত্র স্থান এই আখাউড়া। দেশের মুক্তিযোদ্ধের পূর্বাঞ্চল প্রবেশদ্বার, মুক্তিযোদ্ধের সময়ের আখাউড়া-আগরতলার সমন্বয়, বীর শ্রেষ্ট শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামালের সমাধি ও খড়মপুরে কল্লাহ শাহ বাবার মাজার শরীফ আখাউড়া উপজেলাতে। তিনি আরো বলেছেন, কিছু রাজনৈতিক হিংস্র হায়ানার মাধ্যমে যারা তাদের সুবিধার জন্য, তাদের লাভের জন্য এই পবিত্র জায়গাকে মাদকের বিষাক্ত ছোবল দিয়ে, বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ড দিয়ে দুষিত পদদলিত করেছে। আমরা সেই জায়গা থেকে আমাদের আইনমন্ত্রী মহোদয়ের নেতৃত্বে আবার আখাউড়া জেগে উঠছে, আখাউড়া পবিত্র জায়গার দিকে ছুটে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাথে যে সম্পর্ক আমার তৈরী হয়েছে তা রক্তের সম্পর্কের চেয়ে বড় হয়ে গেছে। এই সম্পর্ক কখনো ছিন্ন হবার নয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ আমার পাশে থেকে সহযোগীতা করায় সফলতা এসেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী আমাকে যে ভালোবাসা দিয়েছে তা কখনো ভুলতে পারব না। চাকুরী জীবনে আমার সবচেয়ে বেশি প্রাপ্তি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাতেই।

পুলিশ সুপারের বিদায় সংর্বধনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন তরফদার।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাংবাদিক মনির হোসেন। এদিকে পুলিশ সুপারের বিদায় বেলায় বিদায়ের একটি গানের সাথে আখাউড়া উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির কৃতি শিক্ষার্থী মনামী রায় নৃত্য পরিবেশন করেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares