Main Menu

প্রবাসী মায়ের হারানো ছেলের জন্য আর্তনাদ

+100%-

গত ৮ বছর আগে আইরিন আক্তার এর বিয়ে হয় বরিশাল সদরে মো. আল আমিন এর সঙ্গে, আইরিন আক্তারকে গর্ভবতী অবস্থায় বিয়ের এক বছর পরেই স্বামী আলামিন ডিভোর্স দেয়।

তখন আইরিন আক্তারের ঘরে জন্ম নেয় এক ফুটফুটে পুত্র সন্তান। পুত্র সন্তাানটি সঙ্গে নিয়ে চলে আসেন হতদরিদ্র পরিবার তার মায়ের কাছে। সেখানে তার জীবন যাত্রা যখন খুব অন্ধকার ছন্দ তখন সিদ্ধান্ত নেন বিদেশ সফরের।

আইরিন আক্তার প্রায় আড়াই বছর ধরে সৌদি আরবে গৃহকর্মী হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি সৌদি আরব আসার পূর্বে তার পুত্র সন্তান তার মায়ের কাছে রেখে আসেন। কষ্টের প্রবাসে প্রতিটি নিঃশ্বাসে জানতে চায় কেমন আছে তার একমাত্র সন্তানটি।

তখনই মায়ের কান্না জড়িত কন্ঠে শোনা যায় তার  সন্তানটি গত ১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে দুপুর একটার দিক থেকে নিখোঁজ। বাড়ি থেকে কাউকে কিছু না বলে সে হারিয়ে যায়, অনেক খোঁজাখুঁজি করার পরও তার কোনো সন্ধ্যান পাওয়া যায়নি।

এই নিয়ে ১০ জানুয়ারি আখাউড়া থানায় একটি নিখোঁজ সাধারণ ডায়েরি করা হয়, ডায়েরি নম্বর-৪০০।

এ দিকে প্রবাসে খবরটি শোনার সঙ্গে সঙ্গে আইরিন আক্তার অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন প্রায় পুরোটা দিন। তার হারিয়ে যাওয়া সন্তানটির নাম মোহাম্মদ ইমাম হোসেন  পিতার নাম মো. আল আমিন, গ্রাম তারাগন, পোস্ট অফিস আখাউড়া, থানা আখাউড়া ও জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

যদি কোনো সহৃদয়বান ব্যক্তি আইরিন আক্তারের  সন্তান মো. ইমান হোসেনের সন্ধান পেয়ে থাকেন তাহলে উক্ত ঠিকানায় পাঠিয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। যোগাযোগের মাধ্যম। ০১৩১৮৫০৬১৪০।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares