Main Menu

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগকে পুনরায় বিজয়ী করতে হবে

+100%-

চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগকে পুনরায় বিজয়ী করার আহবান জানিয়েছেন প্রধান মন্ত্রীর সাবেক একান্ত সচিব, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি। তিনি গতকাল শনিবার সকালে বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের লক্ষ্মীমুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে এক জন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন। পত্তন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোকতাদির চৌধুরী এম.পি আরো বলেন, একটি সরকারের ধারাবাহিকতা না থাকলে উন্নয়ন কর্মকান্ড বাঁধাগ্রস্ত হয়। তাই আগামী নির্বাচনে পুনরায় আওয়ামীলীগকে বিজয়ী করতে হবে। যারা মেয়েদেরকে চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পড়িয়ে ঘরে বন্দী রাখতে চায় এবং নারীদের অধিকার মর্যাদা হরন করতে চায় তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বিজয়নগর উপজেলায় বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে বলেন, বিগত ২০০৯ সালে জনগণের সমর্থন নিয়ে আমাদের দল ও মহাজোট, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠন করে। পরবর্তী ২০১১ সালের ২৭শে জানুয়ারী উপ-নির্বাচনে আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর ২ কোটি ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে চান্দুরা-আখাউড়া সড়কের পত্তন ইউনিয়ন এলাকায় ২ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার করা হয়। ৫৮ লাখ টাকা ব্যয়ে শেখ হাসিনা সড়কের (সিমনা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া রাস্তা) ১ম ধাপের উন্নয়ন করা হয়। ১কোটি ৩৩ লাখ৭৪ হাজা টাকা ব্যয়ে সিমনা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া খাল পুনঃখনন করা হয়। ১ কোটি ৩৩ লাখ ৭৪ হাজার টাকা ব্যয়ে পত্তন উচ্চ বিদ্যালয় ভবণ নির্মাণ করা হয়, ৩০ লাখ ৮৮ হাজার টাকা ব্যয়ে আজমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবণ নির্মাণ করা হয়, ২৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যয়ে নোয়াগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবণ নির্মাণ করা হয়, ২৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যয়ে মনিপুর উত্তর রেজিঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবণ নির্মাণ করা হয়, ৩৭ লাখ ৫ হাজার টাকা ব্যয়ে পত্তন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবণ নির্মাণ করা হয়, ৪০ লাখ ৬৯ হাজার টাকা ব্যয়ে বড় পুকুর পাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবণ নির্মাণ করা হয়, ৫৪ লাখ ৬৯ হাজার টাকা ব্যয়ে পত্তন ইউনিয়নের ৬টি মসজিদ একটি ঈদগাহ, ২টি ঘাটলা, ৪টি স্কুল একটি রাস্তা ও একটি কালভার্ট নির্মাণ করা হয়। ১ কোটি ৮৭ লাখ ৮৪ হাজার টাকা ব্যয়ে গোয়ালখোলা, জগন্নাথপুর লক্ষ্মীমোড়া, শ্রীপুর, আদমপুর, ফুলবাড়িয়া, মণিপুর গ্রামে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। অতি দরিদ্রের জন্য কর্মসূচীর আওতায় ২৯০ জন শ্রমিকের মাঝে ব্যয় করা হয় ২০ লাখ ৩০ হাজার টাকা। ১৩টি মসজিদ, ৪টি কবর স্থান, ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি উচ্চ বিদ্যালয়, ১২টি ুদ্র রাস্তা মেরামত, একটি শ্মশান, ২টি পি পি ড্রেন মেরামত ও সংস্কার বাবদ ১২৬ মেট্রিক পন খাদ্যশস্য বিতরণ করা হয় যার মূল্যমান ২৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। পত্তন উচ্চ বিদ্যালয়ে কম্পিউটার লেপটপ ও প্রজেক্টর প্রদান করা হয় দেড় লাখ টাকায়। তিনি বলেন এসব উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে আওয়ামীলীগকে বিজয়ী করা ছাড়া বিকল্প নাই। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার বশিরুল হক ভূইয়া, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মেজর (অবঃ) জহিরুল হক খাঁন বীর প্রতিক, বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জহিরুল হক ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ তানভীর ভূইয়া






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares