Main Menu

আশুগঞ্জের তালশহরে গ্রাম পুলিশ সদস্য বানু চন্দ্র দাসের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ॥

+100%-

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ দুবৃত্ত্বের গুলিতে নিহত আশুগঞ্জ উপজেলার তালশহর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ সদস্য বানু চন্দ্র দাসের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবীতে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী।

শনিবার বিকেলে তালশহর বুধাই শা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে আগামী ১৮ এপ্রিল সকাল ১০টায় আশুগঞ্জ গোলচত্বরে বানু চন্দ্র দাসের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন ও ২৩ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের কর্মসুচি ঘোষনা করেছে। দ্রুত হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার না করা হলে এ কর্মসুচির চেয়ে আরো কঠোর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে তারা।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মঈন উদ্দিন মঈন।
আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবু নাছের আহমেদ-এর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আনিছুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও দূর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল করিম খান সাজু, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য হাজী মোঃ মোবারক আলী চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আমির হোসেন, তারুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান ইদ্রিস হাসান, লালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মুর্শেদ মাষ্টার, সাধারন সম্পাদক খলিলুর রহমান, তালশহর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ, সাধারন সম্পাদক রাকিবুল হাসান রাসেল, আশুগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ সালাহ উদ্দিন, শরীফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফ উদ্দিন চৌধুরী, চর চারতলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হুমায়ুন কবীর সরকার, তালশহর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ফয়জুল্লাহ শিশু, শহিদ উদ্দিন নূরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য আবু রিজবী, মতিউর রহমান সরকার, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন বেপারী, তালশহর গ্রামের বাসিন্দা গুরু দাস মাষ্টার, নিয়াজ আক্তার, আব্দুল আসিদ, সুরুজ মেম্বার, আইয়ুব মেম্বার। সমাবেশটি সঞ্চালনা করেন তালশহর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মারজান হোসেন।
উল্লেখ্য, গত ৬ এপ্রিল শনিবার সকালে আশুগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমির হোসেন ও তার বাবা তালশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোঃ আবু সামার ব্যাক্তিগত গাড়ির জ্বালানী তেল আনতে চালকের সাথে তালশহর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ ভানু চন্দ্র দাসকে পাঠান। বাড়ি থেকে কিছুদুর যাওয়ার পর সিএনজি দিয়ে এসে ৪ যুবক তালশহর-বাহাদুপুর সড়কে গাড়িটি গতিরোধ করলে চালক কৌশলে পালিয়ে গেলেও গাড়ির ভিতরে থাকা বানু চন্দ্র দাসকে গুলি করে হত্যা করে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares