Main Menu

মসজিদুল আকসায় হামলার প্রতিবাদে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রসেনার মানববন্ধন

+100%-

বিশ্বে মুসলিম মিল্লাতের অনৈক্য, একটি মুসলিম রাষ্ট্র আরেকটি মুসলিম রাষ্ট্রের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ না থাকায় ইসলামের চিরশত্রু ইহুদিরা একে একে ধ্বংস করছে মুসলিম অধ্যুষিত সকল রাষ্ট্র গুলোকে। শত বছর ধরে ফিলিস্তিনি মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের দৃশ্যটি তার উজ্জল দৃষ্ঠান্ত। ইরাক, ইরান, আফগানিস্তান, লিবিয়া সহ অনেক ইসলামী রাষ্ট্রের মুসলমানের উরপ হামলা করে ইসলামকে পৃথিবীর বুক থেকে ধ্বংস করার প্রত্যয়ে কাজ হচ্ছে এই ইহুদি সম্প্রদায়। হামলা করতে করতে তাদের দিনদিন আরো সাহস বৃদ্ধি পেতে থাকে, যার ফলশ্রুতিতে তারা আজ ফিলিস্তিনের জেরুজালেমে অবস্থিত অগনিত নবী-রাসুলের স্মৃতিবিজড়িত মুসলমানদের প্রথম কিবলা মসজিদুল আল-আলকসায় ৫০ বছরের কম বয়স্ক মুসলমানদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ইসরাইল। যখন এই নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদ করে ফিলিস্তিনের মুসলমানেরা তখনি গত ২১ জুলাই  শুক্রবার ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার স্বীকার হয় নিরহ ফিলিস্তিনের মুসলমান। আমি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনার পক্ষ থেকে এ হামলার তীব্রনিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তিনি আরো বলেন ফিলিস্তিন সহ মুসলিম বিশ্বে ইহুদিদের হামলা বন্ধে মুসলিম মিল্লাতের ঐক্য আজ অতিব জরুরি। তা না হলে বিশ্ব মুসলিম মিল্লাতের ওপর ইহুদিদের হামলা আরো বৃদ্ধি পাবে এবং মুসলিম জাতি ধ্বংস হতে থাকবে।

মসজিদুল আল-আকসায় হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় পরিষদের কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রসেনার উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাংগঠনিক সচিব জননেতা আলহাজ্ব এড. মোঃ ইসলাম উদ্দিন দুলাল প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সভাপতি সংগ্রামী ছাত্রসেনা মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা ইঞ্জিয়ার জুবায়ের আহমেদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সহ-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এড. সায়েদুর রহমান আউলাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মিজানুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ছৈয়দ জাফরুল কুদ্দুস গালেব, অর্থ সম্পাদক মাওলানা সায়েদুজ্জামান জাবের, দপ্তর সম্পাদক মুফতি সায়েদুর রহমান রেজবী,  প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিল জেলা ছাত্রসেনার সাবেক সভাপতি সৈয়দ আবুল বাশার।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রসেনার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন শাহ বাবুল, সহ-সাধারণ সম্পাদক হাফেজ আতাউর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ জাকির হোসাইন, অর্থ সম্পাদক আরিফ আহমেদ খান, প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, সহ-প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ সবুজ আহমেদ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মোহাম্মাদ মাজহারুল ইসলাম রেজা, কসবা উপজেলা সভাপতি মোহাম্মদ উজ্জল হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ শফিকুল ইসলাম, কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম সুমন, সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক নাজাত মোহাম্মদ হানিফ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আউলাদ হোসাইন, হাফেজ বায়েজিদ আহমেদ, মোহাম্মদ ঈমান আলী, সহ প্রমুখ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares