Main Menu

দুই যুগ ধরে নারী শিক্ষার আলো ছড়াচ্ছে নবীনগর মহিলা ডিগ্রী কলেজ

+100%-

মিঠু সূত্রধর পলাশ,নবীনগর: তিতাস পাড়ের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় নারী শিক্ষার প্রসারে দু’যুগ ধরে আলো ছড়াচ্ছে নবীনগর মহিলা ডিগ্রি কলেজ। ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ আসনের আওয়ামীলীগের সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম এড. আব্দুল লতিফের প্রচেষ্টায় ১৯৯৮ সালের ২২ জুলাই নবীনগর মহিলা কলেজটি প্রতিষ্টিত হয়। কলেজটি হওয়ায় নবীনগরের গরিব-অসহায় পরিবারের উচ্চ শিক্ষা বঞ্চিত মেয়েরা সহজে লেখা পড়া করার সুযোগ পেয়ে এলাকার নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে বিস্ময়কর অগ্রগতি সাধন করেছে। তাদের অনেকেই আজ সরকারি বেসরকারি পর্যায়ে নিজনিজ ক্ষেত্রে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত। স্থানীয় ইসলামি ঐক্যজোট নেতা মাওলানা মেহেদী হাসান জানান, মরহুম সংসদ সদস্য এড.আব্দুল লতিফ তার নিজস্ব তহবিল হতে শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতাসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ দিয়ে নারী শিক্ষার প্রসারে উপজেলার এই একমাত্র মহিলা কলেজটিকে অনেক কষ্ট করে দাঁড় করিয়েছেন।নারী শিক্ষা বিস্তারে প্রয়াত এই সাংসদের অবদান আমারা কেউ ভুলবে না। স্

থানীয় সাংসদ ও কলেজটির বর্তমান সভাপতি মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল বলেন, বর্তমান সরকার নারী ও শিক্ষাবান্ধব সরকার। শিক্ষা ও নারীদের সুরক্ষায় সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে আওয়ামীলীগ সরকার, যা অন্য কোন সরকার দিতে পারে নি। তাই বাংলাদেশের জনগন আওয়ামীলীগকে ভোট দিয়ে বারবার নির্বাচিত করে। পাশাপাশি নবীনগর মহিলা কলেজের সার্বিক সহযোগিতায় সবসময় থাকবেন বলেও জানান তিনি। নিয়মিত শিক্ষার পাশাপাশি আট শতাধিক শিক্ষার্থী স্টাডি সেন্টারের অধীনে বাংলাদেশ উনম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএ/বিএসএস প্রোগ্রামে মহিলা কলেজে অধ্যয়নরত। বর্তমানে কলেজটি নিয়মিত ডিগ্রি কোর্স চালু হয়েছে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এখন পর্যন্ত নবীনগর উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সুনাম অক্ষুন্ন রেখে পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

এ কলেজে প্রতিবছর এইচ এস সি পরীক্ষায় রেকর্ড সংখ্যক বৃত্তি এবং জিপিএ-৫ পেয়ে আশানুরূপ ফলাফল করে আসছে। প্রতিষ্ঠার দুই যুগ পরে সাবেক সংসদ সদস্য শাহ জিকরুল আহম্মেদ খোকন, সাবেক সংসদ সদস্য ও আওয়ামীলীগ সভাপতি ফয়েজুর রহমান বাদলের নিজস্ব অর্থায়নে কলেজের অডিটরিয়ামের দ্বিতল ভবন এবং খেলার মাঠের চারদিকের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, শহীদ মিনারসহ ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। এছাড়াও বর্তমান সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুলের প্রচেষ্টায় ইতিমধ্যে অনেক উন্নয়ন মূলক কাজ চলছে। কলেজটির বর্তমান অধ্যক্ষ কান্তি কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে এক মাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে মানুষ গড়ার কারখানায় হিসেবে নবীনগর উপজেলার মুখ উজ্জ্বল করেছে এ কলেজটি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ এর মাননিয় সংসদ সদস্য এবাদুল করিম মহদোয়ের দিক নির্দেশনায় অচিরেই এই কলেজে অনার্স কোর্স চালো হচ্ছে। নারী শিক্ষায় এই কলেজটির অবদান অনস্বীকার্য।।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares