Main Menu

নাসিরনগরে মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় হামলা, আহত ২৫

+100%-

এম.ডি.মুরাদ মৃধা, নাসিরনগর প্রতিনিধিঃ  নাসিরনগরে ইয়াবা ব্যবসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় যুবলীগ সভাপতির উপর সন্ত্রাসী হামলার করেছে মোঃ রুবেল মিয়ার একটি সন্ত্রাসী দল। রুবেল ফান্দাউক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী হিসেবে কর্মরত আছে। সে সরকারী চাকরী করার পরও ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

ফান্দাউক ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি জানে আলম সায়েম জানান, সকাল বেলায় যখন দোকান খুলে ব্যবসা শুরু করি তখন কিছু বুঝে উঠার আগেই একদল সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার উপর হামলা করে। তখন আশে পাশের লোকজন আমার চিৎকারে এগিয়ে আসলে তাদের উপরও তারা হামলা করে। হামলার এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাদলে ২৫ জন আহত হয়।

নাসিরনগর থানায় সাধারণ ডায়েরি(নং-৭৮১ তারিখ-২৪-০৩-২০১৮) দায়ের করা অভিযোগে ও স্থানীয়রা জানায়, ফান্দাউক ইউনিয়নের বিএনপি কর্মী মোঃ জাকারিয়া এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদকব্যবসা ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে আসছিল। এলাকায় মাদকব্যবসা করে যুবসমাজকে ধ্বংশের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাচ্ছে মাদকব্যবসায়ী চক্রটি। তাদের ভয়ে আতংকিত থাকতে হয় ফান্দাউকের এলাকাবাসী সহ উপজেলার মানুষ। এদের বেপরোয়া দৌরাত্ব্যে এলাকায় চুরি-ছিনতাইসহ মাদকসেবী বেড়ে যাওয়ায় উদ্বিগ্ন অভিভাবক ও সচেতন মহল।
কিছুদিন পূর্বে র‌্যাবের সিলেটের একটি টিম অভিযান চালিয়ে জাকারিয়া(বাবা জাকির) বাড়ি হতে ১৭৫০ পিচ ইয়াবা সব বিভিন্ন মাদকদ্রব্য উদ্ধার করে। মাদকব্যবসায়ীদেরকে এলাকায় মাদক বেচাকেনায় বাঁধা প্রদান ও প্রতিবাদ করেছিল ফান্দাউক ইউনিয়ননের যুবলীগ সভাপতি মোঃ জানে আলম সায়েম। এতে ক্ষিপ্ত হয় উঠেছিল চক্রটি। মাদকব্যবসা বন্ধের বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ২৯ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে যুবলীগ সভাপতির দোকানে হামলা ভাংচুর চালিয়ে নগদ টাকাসহ দোকানে লুটতরাজ করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে। তান্ডবলীলার সময় তাদেরকে বাঁধা দিলে পাশের দোকানের হিন্দু সম্প্রদায়ের বৃদ্ধা তরুণী মোহন গোপ(৭০) সহ ১৫ জনকে বেধড়কভাবে লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে।

পরে বিষয়টি নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১(নাসিরনগর) আসনের সংসদ সদস্য বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এর সাথে যুবলীগ সভাপতি জানে আলম সায়েম দেখা করলে তাকে সবধরণের বৈধ আইনি সহায়তা দেয়ার আশ্বাস দেন।

এ ব্যাপারে নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আবু জাফর বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় যুবলীগ সভাপতির উপর হামলার কথা আমরা শুনেছি। তার পর দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছি। এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত। থানায় মামলা হলে আমরা আসামীদের গ্রেপ্তার করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।



(পরের সংবাদ) »



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares