Main Menu

বিয়াইর বিরুদ্ধে বিয়াই

নাসিরনগরে বিএনপির নেতা-কর্মীর আওয়ামীলীগে যোগদান

+100%-

এম.ডি.মুরাদ মৃধা, নাসিরনগর প্রতিনিধিঃ  চাড়তলা ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিন আহমেদ(পারভেজ মাষ্টারের) অনিয়ম,দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগের কারণে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি হতে প্রায় অর্ধশত লোক আওয়ামীলীগে যোগদান করেন। মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় চাপড়তলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি হাজ্বী সুরুজ আলীর সভাপতিত্বে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কর্মী সভায় নূরআলম ভূইয়া(সেজুর) নেতৃত্বে বিএনপির কর্মীরা আওয়ামীলীগে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করেন।
দলত্যাগী নূরআলম ভূইয়া অভিযোগ করে বলেন, সৈয়দ একরামুজ্জামান সুখন সাহেব ঢাকায় বসে রাজনীতি করেন। তিনি ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিন আহমেদ(পারভেজ মাষ্টারের) পরামর্শে চলেন। পারভেজ মাষ্টার আমাদের ইউনিয়নে কোন উন্নয়ন করেনি।
মোঃ রুবেল ভূইয়া অভিযোগ করে বলেন, একরাম সাহেব এলাকায় আসলে গাড়ীতে বসে নেতা-কর্মীদের সাথে কথা বলেন। তিনি আমাদের মানুষ মনে করেন না। তার কাছে মনে হয় চাপড়তলা ইউনিয়নের মানুষ টাকার পাগল। কিন্তু আমরা বলতে চাই, আমরা আপনাকে কুলা মার্কা নির্বাচনে ভোট দিয়েছি আর ভোট দেবনা। এবার আমরা জন নেতা সংগ্রাম ভাইকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার জন্য এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে আওয়ামীলীগে যোগদান করলাম।
জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) সংসদীয় আসনের উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্ঠা সৈয়দ একে একরামুজ্জামান (সুখন) তার আপন ছোট ভাই সৈয়দ কুটু এবং নূরআলম ভুইয়া সেজুর ছোট বোনের মধ্যে বিয়ে হয়। সেই সম্পর্কে সৈয়দ একরামুজ্জামান সুখন ও নূরআলম ভুইয়া সেজু আপন বিয়াই। চাপড়তলা ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ মনে করছেন এবার হবে খেলা। দেখা যাবেকে জিতে এই খেলায়। বিয়াইর বিরুদ্ধে বিয়াই।
কর্মী সভায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর হাসানের সঞ্চলনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি, মনসুর আলী,সাধারণ সম্পাদক নাদিম মিয়া, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন বেলাল,ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি আঃ আহাদ মিয়া,সদস্য মুজবিুর রহমান,ফজলুর রহমান, ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার আঃ কুদ্দুস,৯নং ওয়ার্ড মেম্বার কুদ্দুস খাঁ,৭নং ওয়ার্ড মেম্বার আঃ খালেক, ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার জজ মিয়া সহ আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অংঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।
কর্মী সভায় বিএনপির নেতা-কর্মীর আওয়ামীলীগে যোগদান সম্পর্কে নাসিরনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম.এ.হান্নান বলেন,যারা আজ আওয়ামীলীগে যোগদান করেছে তারা বিএনপির ওয়ার্ড,ইউনিয়ন কিংবা উপজেলার কোথাও কোন সদস্যপদ নেই। আমার জানা মতে তারা কখনো বিএনপি করেনি। আমার নেতা সৈয়দ একরামুজ্জামান সুখন সাহেবের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares