Main Menu

বুথফেরত সমীক্ষা::ত্রিপুরায় বড় চমক দিতে চলেছে বিজেপি

+100%-

দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে ত্রিপুরার বাম দুর্গে দাঁত ফোটাতে পারেনি বিরোধীরা। কিন্তু, বুথ ফেরত সমীক্ষায় ইঙ্গিত এবার সেই দুর্গেই বড়সড় আঘাত হানতে চলেছে বিজেপি। এবিপি আনন্দ-সি ভোটার বুথফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, ৬০ আসনবিশিষ্ট ত্রিপুরা বিধানসভায় ম্যাজিক ফিগার ৩১। বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, এবার সিপিএম তথা বামফ্রন্ট ২৬ থেকে ৩৪টি আসন পেতে পারে। অন্যদিকে, বড়সড় চমক দিয়ে বিজেপি ও তার সহযোগীদের ঝুলিতে যেতে পারে ২৪ থেকে ৩২টি আসন।

অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়া-র বুথফেরত সমীক্ষা বলছে, ত্রিপুরায় এবার বিজেপি-জোট ৪৪ থেকে ৫০টি আসন পেতে পারে। অন্যদিকে, বাম দলগুলি পেতে পারে মাত্র ৯ থেকে ১৫টি আসন। অন্যান্য দলগুলির ঝুলিতে যেতে পারে ০ থেকে ৩টি আসন। নিউজ এক্স-এর সমীক্ষা অনুযায়ী, ত্রিপুরায় এবার বিজেপি ও তাদের জোটসঙ্গীর ঝুলিতে যেতে পারে ৩৫ থেকে ৪৫টি আসন। বামফ্রন্ট পেতে পারে ১৪ থেকে ২৩টি আসন। কংগ্রেস একটিও আসন পাচ্ছে না। সি ভোটার সমীক্ষা অবশ্য হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে। এই সমীক্ষা অনুযায়ী, ত্রিপুরায় বিজেপি-জোট পেতে পারে ২৪ থেকে ৩২টি আসন। অন্যদিকে, বামফ্রন্ট পেতে পারে ২৬ থেকে ৩৪টি আসন।

শুধুমাত্র আসনের নিরিখেই ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলা নয়, ভোট শতাংশের নিরিখেও বিজেপি চমক দিতে পারে বামশাসিত এই রাজ্যে। বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, এবার ত্রিপুরায় সিপিএম পেতে পারে ৪৪.৩ শতাংশ ভোট। বিজেপি ও তার সহযোগীদের ঝুলিতে এবার যেতে পারে ৪২.৮ শতাংশ ভোট। অর্থাৎ সেয়ানে সেয়ানে টক্করের জোরালো সম্ভাবনা।

ত্রিপুরায় গত বিধানসভা নির্বাচনে সিপিএম পেয়েছিল ৪৯টি আসন। বুথ ফেরত সমীক্ষা সঠিক হলে, এবার ১৯টি আসন খোয়াতে হতে পারে সিপিএমকে। অন্যদিকে ২০১৩ সালের বিধানসভা নির্বাচন ও ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে ত্রিপুরায় খাতাই খুলতে পারেনি বিজেপি। এবার সেই তারাই পেতে পারে ২৪-৩২টি আসন। গত বিধানসভা নির্বাচনে সিপিএম পেয়েছিল ৪৮.১ শতাংশ ভোট। এবার ত্রিপুরায় সিপিএম পেতে পারে ৪৪.৩ শতাংশ ভোট। বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, এবার ৩.৮ শতাংশ ভোট কমতে পারে মানিক সরকারদের। অন্যদিকে, ৫ বছর আগে ত্রিপুরায় বিজেপি পেয়েছিল মাত্র ১.৫ শতাংশ ভোট। এবার তারা একলাফে পেতে পারে প্রায় ৪৩ শতাংশ ভোট। অর্থাৎ প্রায় ৪২ শতাংশ ভোট বাড়তে পারে বিজেপির।

সমীক্ষায় উঠে এসেছে, দীর্ঘদিন ত্রিপুরার প্রধান বিরোধী দলের মর্যাদা ধরে রাখা কংগ্রেসের এবার খারাপ ফল করতে চলেছে। তারা পেতে পারে শূন্য থেকে দুটি আসন। যদিও ২০১৩ সালে কংগ্রেসের ঝুলিতে এসেছিল ১০টি আসন। ত্রিপুরার ফল ঘোষণা ৩ মার্চ। সেদিনই মেঘালয় এবং নাগাল্যান্ডেরও বিধানসভা ভোটের ফল ঘোষিত হবে। বুথফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, মেঘালয়ে এগিয়ে কংগ্রেস। নাগাল্যান্ডে অবশ্য এনপিএফ-এর সঙ্গে এনডিএ-র টক্করের সম্ভাবনা রয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares