Main Menu

দ্বিতীয় ভৈরব রেলসেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি না করায় এ্যাড.জিয়াউল মৃধা হতাশ, এ অপমান সরাইল আশুগঞ্জবাসীর

+100%-

মেঘনা নদীতে দ্বিতীয় ভৈরব রেলওয়ে সেতু বৃহস্প্রতিবার সকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন। এদিকে সেতুটি এক প্রান্ত কিশোরগঞ্জে ভৈরব। অন্য প্রান্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ। তবে ভৈরবে আয়োজিত উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব) আসনের সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনকে অতিথি করা হলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের সংদস্য জাপা কেন্দ্রীয় নেতা এ্যাড.জিয়াউল হক মৃধাকে অতিথি করা হয়নি।

এই নিয়ে তিনি ক্ষোভ ও দুংখ প্রকাশ করে বুধবার বিকালে গণমাধ্যমে এক বিবৃতি প্রদান করেছেন।

এক বিবৃতিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড.জিয়াউল হক মৃধা ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, মেঘনা নদীতে দ্বিতীয় ভৈরব রেলওয়ে সেতু অধিকাংশ সেতুর অবস্থান ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ সীমানায়। সেখানে ভৈরবে সংসদ সদস্যকে অতিথি করা হলেও তাকে দর্শক হিসাবে একটি আমন্ত্রন পত্র দেওয়া হয়েছে। যা জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য হওয়ায় তাকে অমূল্যায়ন করা হয়েছে বলে তিনি জানান। এসময় তিনি দাবি করেন অতীতেও এই রকম অবমাননাকর পরিস্থিতি স্বীকার হতে হয়েছে তাকে। এই ঘটনায় তিনি হতাশ ও ব্যথিত হয়েছেন বলে জানান।

এসময় তিনি আরও জানান ২০০৮ ও ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সরাইল ও আশুগঞ্জ উপজেলার আপামর জনগনের বিপুল ভোটে তিনি পরপর দুইবারের জাতীয় সংসদ সদস্য। এই অনুষ্ঠানে অতিথি না করায় শুধু তাকে অবমাননা নয়। সরাইল ও আশুগঞ্জ উপজেলার প্রতিটি আপামর জনগনকে অবমাননা করা হয়েছে।

এ সময় তিনি উপরোক্ত বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares