Main Menu

রেল স্টেশনের অবনমন : আশুগঞ্জে মানববন্ধন ও সমাবেশ॥ ৩১ জুলাই হরতাল ও রেলপথ অবরোধ

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ রেলস্টেশনকে বি গ্রেড থেকে ডি গ্রেডে নামানোর প্রতিবাদে, পরিকল্পিত উন্নয়ন বাস্তবায়ন ও তূর্ণা নিশিতা ট্রেন স্টেশনে যাত্রা বিরতীর দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জাগ্রত আশুগঞ্জবাসী।

বুধবার সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আশুগঞ্জ গোলচত্বর এলাকায় বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী হাতে হাত ধরে এ মানববন্ধন রচনা করেন। এ ছাড়া আগামী ৩১ জুলাই আশুগঞ্জে সর্বাত্বক হরতাল ও ঢাকা-চট্রগ্রাম-সিলেট রেলপথ অবরোধ ও ২৫ জুলাই সকাল ১০টায় একই দাবিতে স্টেশনের প্লাটফরমে অবস্থান ধর্মঘটের ঘোষণা দেয়া হয়। কর্মসূচি ঘোষণা করেন আশুগঞ্জ জাগ্রত আশুগঞ্জবাসী সংগঠনের সদস্য সচিব ঈসা খান।

মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদ সভায় সংগঠনটির আহবায়ক হাজী মো. ছফিউল্লাহ মিয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ এর সাবেক সভাপতি হাজী মো. ফিরোজ মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম আহবায়ক আবু নাছের, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহানা বেগম, শ্রম কল্যান কেন্দ্রের সাবেক পরিচালক ডাঃ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, আশুগঞ্জ নাগরিক কমিটির সাধারন সম্পাদক হাজী মোঃ মোবারক আলি চৌধুরী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইকবাল হোসেন, চর চারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়া উদ্দিন খন্দকার, আশুগঞ্জ নাগরিক সমাজের সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবীর, আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাদেকুল ইসলাম সাচ্চু, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গির খন্দকার প্রমূখ।

এ ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আশুগঞ্জ রেলস্টেশনকে বি গ্রেড থেকে ডি গ্রেডে অবনমনের প্রতিবাদ ও অনতিবিলম্বে আশুগঞ্জ রেলস্টেশনকে ডি গ্রেড থেকে বি গ্রেডে পূ:ণবহাল, মূল নকশা ও পরিকল্পনা অনুযায়ী স্টেশনের উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে তূর্ণানিশিথা ট্রেনের যাত্রা বিরতীর দাবি সহ তিন দফা দাবি উপস্থাপন করা হয়। এর আগে আশুগঞ্জ রেলস্টেশনকে বি গ্রেড থেকে ডি গ্রেডে অবনমনের প্রতিবাদে সংগঠনটির পক্ষ থেকে ৩ জুলাই জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে রেলপথ মন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান ও ১৪ জুলাই প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়।
উল্লেখ্য, আশুগঞ্জ উপজেলায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র, সারকারখানা, নৌ বন্দর, সাইলো ও গ্যাস কমপ্রেসার স্টেশনসহ বেশ কিছু রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। প্রতিদিন আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে দুটি আন্তঃনগর ও দুটি কমিউটার ট্রেনসহ বেশ কয়েকটি মেইলট্রেন যাত্রা বিরতি করে। তবে ‘ডি’ গ্রেডে নামিয়ে দেয়ার কারণে শুধু টিকিট বুকিং অফিস ছাড়া আর কিছুই থাকবে না স্টেশনটিতে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares