Main Menu

ঈদ করতে কর্মকর্তা কর্মচারীরা বাড়িতে। নাসিরনগর প্রশলীর কার্যালয়ে অচলাবস্থা

+100%-

মোঃ আব্দুল হান্নান নাসির নগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধি ঃ ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার নাসির নগর উপজেলা প্রকৌশলীর  কার্যালয় খোলার দিনেও বন্ধ। কোনরুপ ছুটি ছাড়াই ঈদ করতে কর্মকর্তা কর্মচারীরা বাড়িতে চলে গেছে । মঙ্গলবার শবে কদরের বন্ধ থাকলে ও রবিবার বিকালেই বাড়িতে চলেযান নাসিরনগর এল জি ই ডি বিভাগের নক্সাকারক মোঃ ইসহাক মিয়া ,এস ও মোঃ রফিকুল ইসলাম, সার্ভেয়ার মোঃ ইস্কান্দর আলী। উপজেলা প্রকৌশলী ফজলুল হকও গত সাতদিন ধরে অনুপস্থিত  জানা গেছে। ৫ আগষ্ট সোমবার সকাল ১০টা উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে অফিসটি তালা বন্ধ। প্রকৌশলী, এস ও,  নক্সা কারক, সার্ভেয়ারের অনুপস্থিতির কারণ জানতে চাইলে একাউনটেন্ট মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, তারা ঈদ করতে বাড়িতে চলে গেছে।

এদিকে, ঈদের সময় প্রকোশলীরা না থাকায় ঠিকাদারদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ রকম একজন ঠিকাদার ঐ প্রতিবেদককে জানান, ঈদের সময় বিল সই না করার জন্য তার সময় মত টাকা পাচ্ছেন না। টাকাও না পাওয়ায় তারাও সাব কন্ট্রাকটর ও শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধ করতে পারছেন না। এখন শ্রমিকদের ও পাওনাদারদের ভয়ে তিনি এলাকায় যেতে পারছেন না বলে জানান। নাসিরনগর উপজেলার প্রকোশলীরা বিলের আগেই তাদের উপরি পাওনা আদায় করে নেন। এ অচলবস্থার জন্য বেশ কয়েকবার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলেও কোন প্রতিকার হয়নি বরং এদের আক্রোশের শিকার হতে হয়েছে।  এ বিষয়ে  প্রকৌশলী মোঃ ফজলুল হকের সাথে কয়েক দফা মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেননি । জেলা প্রকৌশলীকে ও কয়েক দফা ফোন করে পাওয়া যায়নি।তও্বাবদায়ক প্রকোশলী (কুমিল্লা) জানান, ‘এ ছুটির ব্যাপারে আমি কিছু জানি না’। নাসির নগর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে প্রকৌশলী,নক্সাকারক,এস ও,সার্ভেয়ার কোনরুপ ছুটি নিয়ে গেছে কিনা জানতে চাইলে ,এবিষয়ে তিনি কিছুই জানেননা  বলে জানান ।তবে তাদের অধিদপ্তর কোনরুপ ছুটি দিয়েছে কিনা তাও তিনি জানেন না বলে জানান ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares