Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা-অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন

দারিদ্র্য হ্রাস ও উন্নয়ন অগ্রগতির নতুন মাইলফলক অর্জন করলো বাংলাদেশ: জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা তথ্য অফিসের ব্যবস্থাপনায় স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা-অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন উপলক্ষ্যে রোজ মঙ্গল বার সকাল ১১.০০ঘটিকায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠানে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শুরুতেই মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) এর সভাপতিত্বে বক্তব্য প্রদান করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান,তিনি বলেন দারিদ্র্য হ্রাস ও উন্নয়ন অগ্রগতির নতুন মাইলফলক অর্জন করলো বাংলাদেশ। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যে বিরুদ্ধে নেয়া পদক্ষেপগুলোর বাস্তবায়নের ফলে উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জন করা সম্ভব হলো। আর্থ-সামাজিক খাতের অর্জনগুলো অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা ঝুঁকি কমিয়েছে।এলডিসি ক্যাটাগরি থেকে উত্তরণের জন্য মাথাপিছু আয়,মানব সম্পদ সূচক এবং অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচক এ তিনটির যেকোন দুইটি অর্জনের শর্ত থাকলেও বাংলাদেশ এ তিনটি সূচকের মানদন্ডেই উন্নীত হয়েছে। জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কাউন্সিলের মানদন্ড অনুযায়ী মাথাপিছু আয় হতে হবে কমপক্ষে ১২৩০ মার্কিন ডলার,বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় তার থেকে বেশি অর্থাৎ ১২৭২ মার্কিন ডলার (সূত্র-সিডিপি) এবং বিবিএস সূত্র মতে-১২৭১ মার্কিন ডলার। মানবসম্পদ সূচকে ৬৬ প্রয়োজন হলেও বাংলাদেশ অর্জন করেছে ৭২ দশমিক ৮(সূত্র-সিডিপি) এবং বিবিএস সূত্র মতে-৭২.৯। অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচকে হতে হবে ৩২ ভাগ বা এর কম যেখানে বাংলাদেশের রয়েছে ২৫ (সূত্র-সিডিপি) এবং বিবিএস সূত্র মতে-২৪.৮। বিশেষ অতিথি জেলা তথ্য অফিসার, দীপক চন্দ্র দাস স্বগত বকÍব্য প্রদান করেন তিনি বলেন-একটি সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গঠনের প্রত্যয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত হয় স্বাধীন বাংলাদেশ। সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে সরকার প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ও রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের কাজ শুরু করে। ইতোমধ্যে সরকার সফলভাবে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। জাতির পিতার যোগ্য উত্তরসূরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঠিক ও যোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের সুপারিশ লাভের মধ্য দিয়ে প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ও রূপকল্প ২০২১ এর সফল বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। উন্নয়নের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় এখন বাংলাদেশ। এ অগ্রযাত্রাকে রুখে কার সাধ্য। এরই ধারাবাহিকতায় ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ও ২০৪১ সালে বাংলাদেশ পৌঁছে যাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের উন্নত দেশের তালিকায়। ।

এছাড়া বিশেষ অতিথি খ.আ.ম রশিদুল ইসলাম,সভাপতি,ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী বক্তব্য প্রদান করেন।উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতি মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক),বলেন- প্রতি তিন বছর অন্তর সিডিপি এলডিসি দেশগুলোর অবস্থা পর্যালোচনা করে। বাংলাদেশ ২০২১ সালে দ্বিতীয়বার পর্যালোচনায় যোগ্য হলে এলডিসি থেকে উত্তরণের সুপারিশ করবে ঔ কমিটি। এর তিন বছর পর আর্থ্যাৎ ২০২৪ সালে এলডিসি থেকে বের হয়ে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে পৌঁছাবে বাংলাদেশ এবং সর্বশেষে অনুষ্ঠনের সমাপ্তি ঘোষণা করেণ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares