Main Menu

নাসির নগরে হাত পা বেঁধে নব বধুকে ধর্ষণ

+100%-

মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসির নগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগরে নববধুকে হাত পা বেধে ধষর্ণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার রাত্র অনুমান ১২ ঘটিকায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ধরমন্ডল ইউনিয়নের গন্না গ্রামে ভিকটিমের নিজ ঘরে।

মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উক্ত গ্রামের নিজাম  মিয়ার স্ত্রী দুই সন্তানের জননী লুৎফা বেগম(২৩)  তার দুই শিশু সন্তান জীবন মিয়া(০৪),মাহিমা বেগম(০২) কে নিয়ে পুর্ব বিটের নিজ ঘরে ঘুমিয়ে থাকে।

রাত অনুমান ১২ ঘটিকায় প্রতিবেশি বজলু মিয়ার বকাটে যুবক সোহেল মিয়া(২৫) ঘরে প্রবেশ করে লুৎফাকে কাপড় দিয়ে মুখ বেধে প্রাণে হত্যার ভয় দেখিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। চিৎকার শুনিয়া আমার শাশ্বড়ী ঘরের লাইট জ্বালাই আমার ঘরে প্রবেশ করে তখন আমাকে কাপড়ে মুখ বাধা ও নিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পায়। ওই সময় সোহেল মিয়া দৌড়াইয়া পালাই যেতে চেষ্ঠা করলে আমার শ্বশুর রজব আলী ও বাসুর শাহিন মিয়া দৌড়ে গিয়ে সোহেলকে তার বাড়ি নিকট ঝাপটে ধরে ফেলে। ওই সময় সোহেলের বাবা বজলু মিয়া ও অলিল মিয়া এসে সোহেলকে তাদের হাত থেকে ছিনিয়ে যায়।

ওই ঘটনায় লুৎফা বেগম বাদী হয়ে তিন জনকে আসামী করে ৫ মে নাসিরনগর থানার মামলা নং-৯, তাং-৫/০৫/২০১৪ইং,ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধনী ২০০৩ এর ৯(১) ৩০ ধারায় ধর্ষন করা ও তৎকাজে সহায়তা করার অপরাধে মামলা রুজু করেছে।

নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আব্দুল কাদের মামলার সত্যতা স্বীকার করেছে। মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোঃ আকরাম হোসেন ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য  ব্রাহ্মণবাড়িয়া হাসপাতালে প্রেরণ করেছে বলে জানায়।