Main Menu

বাংলাদেশ ছেড়ে আসা হিন্দুদের ফেরত পাঠানো যাবে না : ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

+100%-

ঢাকা : ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, ‘‌ধর্মীয় নিপীড়নের’ কারণে যেসব হিন্দু বাংলাদেশ থেকে ভারতে পালিয়ে এসেছে তাদেরকে অন্যান্য অবৈধ অভিবাসীদের সাথে এক কাতারে ফেলা যাবে না এবং সেদেশে ফেরতও পাঠানো যাবে না। খবর-টাইমস অব ইন্ডিয়া।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার আদালত ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এবং ১৮টি রাজ্যকে এই নির্দেশ দেয়। ‘স্বজন’ নামের একটি এনজিওর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এই নির্দেশ দেয়।

আবেদনকারী অ্যাডভোকেট শুভদীপ রায় বলেন, ভারত ভাগের আগে যেসব হিন্দু পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান থেকে ভারতে এসেছিলেন তাদেরকে উদ্বাস্তু হিসেবে দেখা হতো এবং বিভিন্ন রাজ্যে তাদের বসবাসের ব্যবস্থা করা হয় এবং নাগরিকত্ব দেয়া হয়।

তিনি বলেন, তাহলে যেসব হিন্দু বাংলাদেশ থেকে নিপীড়নের কারণে এখনো পালিয়ে আসছে তাদের ক্ষেত্রেও কেন একই নিয়ম অনুসরণ করা হবে না।

শুভদীপ বলেন, এর আগে তিব্বত, শ্রীলঙ্কা, ভুটান, আফগানিস্তান, মিয়ানমার থেকে যেসব লোক এবং বাংলাদেশ থেকে যেসব চাকমা ভারতের অরুণাচল, ত্রিপুরা এবং অন্যান্য রাজ্যে আশ্রয় নিয়েছে তাদেরকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়নি।

এনজিওটির দাবি, ধর্মীয় নিপীড়নের কারণে যেসব হিন্দু বাংলাদেশ থেকে পালিয়েছে তাদেরকে অবৈধ অভিবাসী হিসেবে বিবেচনা করা এবং ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের নো ম্যান্স ল্যান্ডে পুশব্যাক করা হবে ভুল সিদ্ধান্ত। এসব লোক দেশহীন। এটা করা হলে তাদেরকে করুণ অবস্থার মধ্যে ফেলে দেয়া হবে। তাদের যাওয়ার আর কোনো জায়গা থাকবে না।

শুনানি শেষে বিচারপতি পি সতশিবম এবং বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এসব হিন্দুকে বাংলাদেশ না পাঠানোর নির্দেশ দেয় এবং আবেদনকারীকে এ ব্যাপারে আরো গবেষণা করার কথা বলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares