Main Menu

গণজাগরন মঞ্চ সহ ১০টি স্পটে বোমা হামলা॥ শহর জুড়ে বোমাতংক॥ প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল(ভিডিও)

+100%-

মনিরুজ্জামান পলাশ : শান্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া হঠাৎ করেই বোমাবাজীতে কেপে উঠেছে। অল্প সময়ের মধ্যে শহরের গণজাগরন মঞ্চ সহ ১০টি স্পটে হাত বোমার বিস্ফোরন ঘটিয়েছে হোন্ডারোহী মুখোশধারীরা। সোমবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জনতা।

জানা যায়, সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার পর থেকে হোন্ডা নিয়ে রুমাল দিয়ে মুখোশধারী দুই যুবক কাধে হাত বোমার ব্যাগ ঝুলিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত শহরের  ডিসি অফিস সংলগ্ন কাউতলী মোড়, পৈরতলা রেলগেইট, পৌরসভা সংলগ্ন গণজাগরন মঞ্চ, মঠের গোড়া, প্রেসকাব চত্বর, কুমারশীলের মোড়ের হোটেল নাজ, লোকনাথ টেংকের পাড় সহ মোট ১০টি স্পটে হাত বোমা ছুড়ে মারে। এ সময় বোমার শব্দে শহর কেপে উঠে। আতংক ছড়িয়ে পরে চতুর্দিকে। পৌর আধুনিক মার্কেট, সুপার মর্কেট, সিটি সেন্টার, কাউতলী এলাকা, হাসপাতাল রোড, কুমারশীল মোড় এলাকায় দোকান পাট বন্ধ হয়ে যায়। প্রাণ বাঁচাতে ছুটাছুটি করতে থাকে শত শত মানুষ। পৈরতলা রেল গেইট এলাকায় বোমার শব্দে কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কে মুহুর্তের জন্য যানচলাচল বন্ধ হয়ে পরে। বিকেলে গণজাগরন মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর।তাদের প্রস্তুতি চলাকালেই বোমা হামলার ঘটনাটি ঘটে। এ কারনে তাদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উদীচীর সাধারন সম্পাদক জহিরুল ইসলাম চৌধুরী স্বপন।

খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান পিপিএম, পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন, অতিঃ পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রব, ওসি তদন্ত মোস্তফা কামাল পাশা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
পুলিশ সুপার  মনিরুজ্জামান পিপিএম জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্বিক আইন শৃংখলঅ পরিস্থিতি ভাল আছে। শুধু মাত্র মিডিয়ায় সংবাদ হওয়ার জন্যই ককটেলের বিস্ফোরন ঘটানো হয়েছে। অচিরেই আমরা অপরাধীদের সনাক্ত করতে পারব। পুলিশ গণজাগরন মঞ্চের পাশ থেকে ৩টি অবিস্ফোরিত হাত বোমা উদ্ধার করেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হোন্ডায় থাকা বোমা হামলাকারীরা যুবক বয়সের, তাদের পরনে  গেঞ্জি, মুখ হাজীদের রুমাল দিয়ে বাধা ছিল। এ দিকে বোমা হামলার প্রতিবাদে পৌর মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক তাজ মো. ইয়াসিন, বিজয়নগর আহবায়ক জহিরুল ইসলাম ভূঞা, সিপিবি নেতা নীতিশ রঞ্জন রায়, জাসদ নেতা জিয়া কারদার নিয়নের নেতৃত্বে গণজাগরন মঞ্চ ও আশপাশ এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন চলাকালে রবিবার ও বিকেলে শহরে মৌলভী পাড়ায় ২টি হাত বোমার বিষ্ফোরন ঘটে। এরপর রাত ১০টায় সম্মেলনস্থলের পাশ থেকে ৩ ছাত্রলীগ কর্মীকে ৩টি পেট্রোল বোমা, ১টি হাত বোমা, ১রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও চারটি রামদা এবং ছুরিসহসহ গ্রেফতার করে।ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন অথবা এই লিঙ্কে : https://www.youtube.com/watch?v=-EHhZiap5cI&feature=youtu.be