Main Menu

লকডাউনে পুরুষ আটক বাড়িতেই, দেদার পিটোচ্ছে… ! বিপন্ন মেয়েদের নিয়ে UN রিপোর্ট

+100%-

ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্বজুড়ে চলছে ‘লকডাউন’,সকলেই গৃহবন্দি। আর এই অবস্থার মধ্যে আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গিয়েছে গার্হস্থ্য হিংসা এবং নির্যাতনের হার। ঘরে দিনমন আটকে থাকার ফলে নারীরা মূলত স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির আত্মীয়দের হাতে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এ তথ্য জানিয়েছেন।

রবিবার রাতে এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের এই প্রাদুর্ভাবের সময় বিশ্বব্যাপী মহিলাদের প্রতি পারিবারিক হিংসা বেড়ে গেছে বহু গুণ। বাড়িতে বেশি সময় থাকায় অনেক ছেলেই মেয়েদের উপর অকারণে বিরক্ত হচ্ছেন। এছাড়াও টান পড়ছে খাবারে। একঘেঁয়ে জীবনে সবার বিরক্ত আসছে। বাড়িতে থাকতে থাকতে অনেকেরই মানসিক সমস্যা হচ্ছে। যেখান থেকে সব রাগ গিড়ে পড়েছে বাড়ির মহিলাটির উপর। বিষয়টি খুব দুঃখজনক। আমি বিশ্বজুড়ে সবাইকে নিজ বাড়িতে শান্তি বজায় রেখে বসবাসের অনুরোধ জানাচ্ছি।

গার্হস্থ্য হিংসা বিষয়ে, ব্রিটেনের দ্য ন্যাশনাল ডমেস্টিক অ্যাবিউজ নামে একটি প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, সম্প্রতি তাদের হেল্পলাইনে সাহায্য চাওয়ার পরিমাণ বেড়ে গেছে। দুই সপ্তাহ আগে যখন লকডাউন ছিল না, তখনকার তুলনায় বর্তমানে সাহায্য চাওয়ার পরিমাণ বেড়েছে ২৫ শতাংশ।

করোনাভাইরাসের এই সময় সব দেশের সরকারকে মেয়েদের প্রতি হিংসা রোধে ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানিয়েছেন গুতেরেস। করোনাভাইরাস মোকাবিলার কৌশলে সরকারগুলোকে এই বিষয়টিও যুক্ত করতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।