Main Menu

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ

নাসিরনগরে পূর্ব বিরোধের জেরে সংঘর্ষ, আহত ২৫, আটক ১২

+100%-

নিজস্ব প্রতিবেদক:: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে পূর্ব বিরোধের জেরে স্থানীয় প্রভাবশালী দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সংঘর্ষে ২৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষের ঘটনায় ১২ জনকে আটক করেছে নাসিরনগর থানা পুলিশ।
বৃহস্পতিবার সকাল আটটার দিকে উপজেলার গোকর্ণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন সহকারি পুলিশ সুপার (সরাইল সার্কেল) মো. আনিছুর রহমান। আটকরা হলো- পরশ মিয়া, খসরু মিয়া, মঞ্জু মিয়া, হাসান আলী, ফুল মিয়া, বাছির মিয়া প্রমুখ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ২০ দিন পূর্বে বিলে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে পরশ মিয়া ও হুমায়োন মিয়ার লোকদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় মামলা করেন। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ঘটনার নিষ্পত্তি হয়। এবং উভয় পক্ষ পুনরায় ঝগড়া করবে না মর্মে লিখিত অঙ্গীকার করেন।

এদিকে গত মঙ্গলবার নূরপুর গ্রামের টেন্ডার পাড়ায় ছায়েব আলী মিয়ার বাড়িতে গানের আসর বসে। সেখানে গান গাওয়া নিয়ে হুমায়োনের পক্ষের লোক ফুল মিয়া গালমন্দ করে পরশ মিয়ার পক্ষের শিপন মিয়াকে। এ নিয়ে ঘটনার দিন বিকালে উভয় পক্ষের লোকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরের দিন বৃহস্পতিবার সকালে পূর্বেরবিরোধের জেরে দু’পক্ষ দেশিয় অস্ত্র নিয়ে আবারো সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় উভয় পক্ষের ২৫ জন আহত হয়। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে। আহত একজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে এবং অন্যদের নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়।
গোকর্ণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছোয়ব আহমেদ হৃতুল বলেন, পূর্ববিরোধের জেরে উভয় পক্ষের লোকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পুলিশকে খবর দিলে তাৎক্ষনিকভাবে সংঘর্ষ থামাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

সহকারি পুলিশ সুপার (সরাইল সার্কেল) মো. আনিছুর রহমান জানান, পূর্ববিরোধের জেরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে থামাতে ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়া হয়। এখন অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। তিনি আরো বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।