Main Menu

শ্বশুর ও ননদসহ ৩জনকে জুসের সাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে পালিয়েছে গৃহবধূ

+100%-
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় শ্বশুর, ননদ ও এক শিশুকে জুসের সাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সুরাইয়া(১৯) নামের গৃহবধূ প্রেমিকের সাথে পালিয়েছে।
বুধবার(২১ই অক্টোবর) সকালে সদর উপজেলার বড়বাকাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিকেলে সদর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, আরজু মিয়ার ছেলে কালাম মিয়া গত প্রায় ৩মাস আগে সুরাইয়াকে (১৯) বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই পরিবারের সদস্যরা সুরাইয়ার আরেক জায়গায় সর্ম্পক আছে, এমন সন্দেহ হয়। বুধবার সকালে বাড়ির লোকজন আরজু মিয়া(৭০), তার মেয়ে পারভীন(২০) ও পারভীনের মেয়ে ছামিয়াকে(৮) অচেতন অবস্থায় ঘরে পায়। কিন্তু কালামের স্ত্রী সুরাইয়াকে ঘরে খোঁজে পাওয়া যায়নি। পাশাপাশি কালামের ছোট বোন খাদিজাকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। অসুস্থ অবস্থায় তিনজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে তাদেরকে ভর্তি করা হয়।
কামালের চাচা সাহাদ মিয়া আরও জানান, সুরাইয়ার উত্তর সুহিলপুর গ্রামের এক ছেলের সাথে অবৈধ সম্পর্ক ছিল। সুরাইয়াকে বিয়ের প্রস্তাবও দিয়েছে ওই ছেলে। তার ভাতিজি খাদিজারও ওই ছেলের বন্ধুর সাথে প্রেম ছিল। এজন্যই দুইজন একসাথে পালিয়েছে বলে সাহাদ মিয়া অভিযোগ করেন। খবর পেয়ে তিনি গুরুত্ব অসুস্থ তিনজনকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন।
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আব্দুল্লাহ আল-মামুন হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগে দুইজনকে ও শিশু বিভাগে একজনকে ভর্তি দেন।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আব্দুর রহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়ে বলেন, পরকীয়ার প্রেমের জেরেই জুসের সাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়েছে কিনা তা প্রাথমিকভাবে ধারণা করা যাচ্ছে না। তবে এই ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আমরা তদন্ত করে এই বিষয়ে আইনিপদক্ষেপ গ্রহণ করবো।