Main Menu

মেজর (অবঃ) জহিরুল হক খান বীর প্রতীকের সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কোরআন খানি, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত।

+100%-

মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী, খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, মেজর (অবঃ) জহিরুল হক খান বীরপ্রতীক এর সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে এক কোরআন খানি, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মরহুমের গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার সুহিলপুরের পাঠানপাড়ায় এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে “মেজর (অবঃ) জহিরুল হক খান বীরপ্রতীক স্মৃতি সমাজসেবা ফাউন্ডেশন”।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডঃ মাহবুবুল আলম খোকন। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদ সদস্য, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ বাবুল মিয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এডঃ লোকমান হোসেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডঃ শাহানুর ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এডঃ সিরাজুল ইসলাম ফেরদৌস, সুহিলপুর ইউনিয়ন এর সাবেক চেয়ারম্যান মোবারক মুন্সি। সুহিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মরহুম নেতার ছোট ভাই জাহাঙ্গীর কবির খান দুলাল এর সভাপতিত্বে ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এম. সাইদুজ্জামান আরিফের পরিচালনায় স্মৃতিচারণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন রানা, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী খাইরুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তাগণ মেজর জহিরের বর্ণাঢ্য ও কর্মময় জীবনের নানান দিক নিয়ে আলোকপাত করে বলেন, তিনি ছিলেন জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান ও তিনি আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কা-ারী। তিনি সারা জীবন মানুষের কল্যাণ কামনায় রাজনীতি করে গেছেন। তার মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী একজন অসাধারণ নেতাকে হারিয়েছে। বক্তাগণ মেজর জহির এর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। তারা তার শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। পরে নেতৃবৃন্দ মেজর জহির এর কবর জিয়ারত শেষে ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। শোক সভায় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি সহ অনেক মানুষের সমাগম হয়।প্রেস বিজ্ঞপ্তি