Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে শিমু হত্যাকান্ডে স্বামীসহ পাঁচজনের যাবজ্জীবন

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামের গৃহবধূ ফাতু বেগম ওরফে শিমু হত্যাকান্ডের ঘটনায় পাঁচজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার জেলা অতিরিক্ত দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. মঈনুদ্দিন এ রায় ঘোষণা করেন। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. শরীফ হোসেন রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রায়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হলো, শিমুর স্বামী রফিকুল ইসলাম, বিদ্যাকুট গ্রামের শামীম আহমেদ, কুড়িঘর গ্রামের মো. আক্তার হোসেন ওরফে বড় আক্তার, মো. আক্তার হোসেন প্রকাশ ছোট আক্তার, একই গ্রামের আরশ আলী। এর মধ্যে রফিকুল ইসলাম বর্তমানে জেলহাজতে আছেন। রফিকুল ইসলাম স্ত্রীকে খুন করতে ছিনতাইয়ের ঘটনা সাজিয়ে ছিলেন বলে পুলিশের তদন্তে উঠে আসে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত ২০০৯ সালের ১০ জুলাই রাতে রফিকুল ইসলাম তার স্ত্রী ফাতু বেগম শিমুকে নিয়ে কুড়িঘর গ্রাম থেকে রিক্শা যোগে বিদ্যাকূট গ্রামে তার নিজ বাড়িতে যাচ্ছিল। পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী কুড়িঘর-বিদ্যাকূট সড়কে শিমুকে হত্যা করার জন্য আসামি আক্তার শামীম, আক্তার হোসেন, ও আরশ ওঁৎ পেতে ছিল। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই সড়কে সহযোগিতায় আসামিরা ছুরিকাঘাত করে শিমুকে হত্যা করে। এ ঘটনাটি ডাকাতির ঘটনা সাজিয়ে নবীনগর থানায় পরদিন ১১ জুলাই একটি মামলা দায়ের করা হয়। পরে পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসে রফিকুলই পরিকল্পিতভাবে তার স্ত্রীকে হত্যা করেছে। পরে পুলিশ রফিকুলকে গ্রেফতার করে। তবে বাকি আসামিরা এখনো পলাতক রয়েছেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares