Main Menu

বাথরুম থেকে গ্যাসফিল্ড স্কুলের অধ্যক্ষের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিজ বাসার বাথরুম থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তাব আলী (৫৮) মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শনিবার (১৩ মে) রাতে প্রয়াত অধ্যক্ষের বড় ভাই মোহাম্মদ আলী বাদি হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন।

এতে আসামি করা হয়েছে অধ্যক্ষ মুস্তাব আলীর স্ত্রী মোছা. বিলকিস খাতুন (৫০), তাদের একমাত্র ছেলে আহম্মেদ ওয়াজিহ ওয়াসিক (২৭) ও চাচাতো ভাই রায়েজুল ইসলাম রাজু (৫৫) কে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহরাব আল হোসাইন।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, মোস্তাব আলী ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিরাসার এলাকাস্থ গ্যাসফিল্ড স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন। দেড় বৎসর আগে মোস্তাব আলী চাচাতো ভাই রায়েজুল ইসলাম রাজুর কাছ থেকে প্রায় ছয় লক্ষ টাকা সুদের উপর ঋণ নেয়। মাঝে মধ্যে রাজু সুদের কিন্তুি নেওয়ার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোস্তাব আলীর বাসায় আসা-যাওয়া করতো।

সুদের কিস্তি দিতে দেরী হলে মোস্তাব আলীকে নানা রকম কটূক্তিমূলক কথাবার্তা শোনাতেন রাজু। মানসিক ভাবে অপমান অপদস্থ করতেন। অপরদিকে সাংসারিক বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে মোস্তাব আলীর স্ত্রী মোছা. বিলকিস খাতুন ও একমাত্র ছেলে আহম্মেদ ওয়াজিহ ওয়াসিক বিভিন্ন ভাবে মানসিক দিক দিয়ে নাজেহাল করাসহ আত্মহত্যা করার জন্য উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলতেন।

তাদের কথাবার্তায় অধ্যক্ষ মোস্তাব আলী প্রায় সময় বাসায় সকালের নাস্তা ও অনেক সময় দুপুরের খাওয়া দাওয়া করতেন না। তিনি ঋণগ্রস্থ হওয়া সত্ত্বেও স্ত্রী ও সন্তান বিলাসীতা জীবন যাপন করতেন। ছেলে ওয়াসিক মাদকদ্রব্য সেবন করতেন এবং দামী মোটরসাইকেল চালানোসহ বিলাসীতা খরচের জন্য টাকার জন্য চাপ দিতেন। টাকা দিতে না পারলে অশোভন আচরণ করতেন। মোস্তাব আলাদা প্রতিবাদ করলে তাকে শারীরিক ও মানসিক লাঞ্ছনার শিকার হতেন। উল্টো স্ত্রী-সন্তান অধ্যক্ষ মোস্তাব আলীকে বলতেন বিষ খেয়ে বা ফাঁসি দিয়ে মরতে।

স্ত্রী-সন্তানের অপমান, অপদস্থ ও অশোভন মূলক আচরণে এবং সুদের টাকাকে কেন্দ্র করে রাজুর কটূক্তি-অপমানজনক কথাবার্তায় লজ্জায়, ঘৃনায় অধ্যক্ষ মোস্তাব আলী আত্মহত্যা করতে বাধ্য হন।

এর আগে, গত বুধবার (১০ মে) সকালে গ্যাস ফিল্ড কোয়ার্টার থেকে মুস্তাব আলীর মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। অধ্যক্ষ মোস্তাব আলী নাটোরের পাইকপাড়া সর্দার বাড়ির মৃত নজির উদ্দিন সরকারের ছেলে।