Main Menu

বাঞ্ছারামপুরে ঝড়ে ঘর বিধ্বস্ত, বিদ্যুৎ বন্ধ

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় ঝড়ে দুই শতাধিক বসতঘর-ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বিধ্বস্ত এবং তিন হাজারেরও বেশি গাছপালা ভেঙে গেছে। গত মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এতে ঢাকা-সিলেট নৌপথে ফেরি চলাচল ও বাঞ্ছারামপুর-হোমনা সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খুঁটি ভেঙে পুরো উপজেলার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে উপজেলার সোনারামপুর, বাঞ্ছারামপুর উত্তর, আইয়ুবপুর, উজানচর, মানিকপুর ইউনিয়নের ওপর দিয়ে ঝড় বয়ে যায়। প্রায় ৩০ মিনিট স্থায়ী ঝড়ে বিভিন্ন স্থানে বসতঘর ও গাছপালার ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে ১০টি বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ঝড়ে ফেরিঘাটের পূর্ব পাশের কড়িকান্দি এলাকায় সংযোগ সড়ক ভেঙে যায়। এ ছাড়া ঘাটের পশ্চিম পাশের নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার বিষনন্দী এলাকার ফেরিঘাটের পন্টুন থেকে গ্যাংওয়ে (পন্টুন থেকে সংযোগ সড়কের লোহার পাটাতন) মেঘনা নদীতে তলিয়ে যায়। এতে রাত নয়টা থেকে গতকাল বুধবার বেলা দুইটা পর্যন্ত ১৬ ঘণ্টা ঢাকা-সিলেট নৌপথে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে।
সরেজমিনে আইয়ুবপুরের কড়িকান্দি ফেরিঘাট এলাকায় অর্ধশত দোকানপাট, ড্যাফোডিল কিন্ডারগার্টেনের ভবন পুরো বিধ্বস্ত হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে লোকজন ঘর ও দোকানপাট মেরামতের কাজ করছেন।
বাঞ্ছারামপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উপমহাব্যবস্থাপক মো. ইয়াহিয়া আকন্দ বলেন, ঝড়ে বেশ কয়েকটি খুঁটি ভেঙে এবং ট্রান্সফরমার নষ্ট হয়ে পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। লাইন মেরামতের কাজ চলছে।সূত্র: প্রথম আলো






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares