Main Menu

বাঞ্ছারামপুরের দরিকান্দিতে দুই পক্ষে সংঘর্ষ, পুলিশ সদস্যসহ আহত ১৭

+100%-

পাওনা টাকার চাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলায় দুই পক্ষে সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১৭ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টার দিকে উপজেলার দরিকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বাঞ্ছারামপুর থানার (ওসি) নিজাম উদ্দিন এ খবর নিশ্চিত করেন।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন– ওসি নিজাম উদ্দিন ও সাব্বির রহমান (তদন্ত) এএসআই মামুনুর রশিদ ও বেলায়েত। আরও একজন কনস্টেবলও আহত হয়েছেন, যার নাম পাওয়া যায়নি। এ ছাড়া, সাব্বির আহম্মেদ ওরফে ছবি (৪৫), তাজুল ইসলাম (২৫), রাশেদুল ইসলাম (২৩), বাশির উদ্দিন (১৭), মো. রাফি (১৪), মো. মাসুদ (১০), মো. রফিকুল ইসলাম (৪৪), মো. খোকন মিয়া, মো. রানা (২২), মো. সিজান (১২), মো. একরাম হোসেন (৩২), জোৎস্না বেগম (৫৫)। এর মধ্যে সাত জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে গত ১৭ সেপ্টেম্বর দরিকান্দি গ্রামের মনির হোসেনের স্ত্রী শাহেদা বেগম ও তার ননদ রফিকুল ইসলামের স্ত্রী রোজিনা বেগমের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে রোজিনার ওপর হামলা চালায় শাহেদার পক্ষের লোকজন। এতে রোজিনা আহত হন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোজিনা ও শাহেদার আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুর ১২টার দিকে দুই পক্ষ পুলিশের উপস্থিতিতে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

পুলিশ আরও জানায়, সংঘর্ষে ১৭ জন আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পাঁচ রাউন্ড টিয়ারসেল ও ২৫ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়া হয়। আহতদের মধ্যে দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ১০ জনকে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। আর সাত জনকে গুরুতর অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ওসি নিজাম উদ্দিন জানান, প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এ সংঘর্ষ চলে। এখনও কোনও পক্ষ মামলা করেনি। তবে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares