Main Menu

পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে কে সন্তানের পিতা জানেই না স্ত্রী রাজো

+100%-

ডেস্ক নিউজ- রাজো ভার্মার পাঁচ স্বামী। যারা আপন পাঁচ ভাই। নিয়ম করেই স্বামীদের সঙ্গে সময় কাটে রাজোর। এক ছেলে রাজোর। তবে পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে কে এই সন্তানের পিতা তা সে জানেই না। রাজো জানান, “প্রথম দিকে একটু ঝামেলা মনে হতো, কিন্তু এখন কড়া রুটিন করে নিয়েছি।রাত কাটানোর ব্যাপারে কেউ কারো চেয়ে বেশি সুবিধা পায় না”।

স্বামীদের একজন গুড্ডু।তার বয়স ২১। গুড্ডুর সঙ্গেই রাজোর প্রথম বিয়ে হয়। তবে গাঁয়ের রীতি মেনে একে একে বর হিসেবে তাকে মেনে নিতে হয় বাকি চার ভাইকেও। এরা হলেন বাজ্জু ৩২, শান্তরাম ২৮, গোপাল ২৬ ও দীনেশ ১৮।

গুড্ডু জানান, “আমরা পাঁচ ভাইই রাজোর সঙ্গে রাত কাটাই। এনিয়ে আমার কোনোই কষ্ট নেই”।

সবচেয়ে বড় ভাই বাজ্জু জানান, “অন্য ভাইদের মতো আমারও স্ত্রী রাজো। এবং আমরা একসঙ্গেই রাত কাটাই”।
উত্তর ভারতের দেরাদুনে রাজোদের সংসার। দিনভর সে বাড়িতে রান্না-বান্না, ঘরকন্নার কাজ করে। দেখাশোনা করে ছেলে জয়ের। আর স্বামীরা বাইরে কাজে যায়।
রাজো জানান, “এটি গাঁয়ের প্রাচীন রীতি।আমার মায়েরও ছিলো তিন স্বামী। যারা আপন ভাই। বিয়ের সময়ই জানতে পারি বরেরা পাঁচ ভাই। পাঁচভাইকেই বর হিসেবে গ্রহণ করতে তখন থেকেই প্রস্তুত ছিলাম”।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares