Main Menu

নবীনগরে গৃহবধুর শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় এলাকাছাড়া হয়েছেন সাবেক সেনা কর্মকর্তা

+100%-

প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে গৃহবধুর শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় বখাটের হুমকিতে এলাকাছাড়া হয়েছেন সাবেক এক সেনা কর্মকর্তা। গত এক সপ্তাহ ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ওই সেনা কর্মকর্তা সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট রফিকুল ইসলাম মানিক। এ ঘটনায় প্রাণনাশের ভয়ে চরম উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন তার পরিবার পরিজন। শ্লীলতাহানির ঘটনার পর বখাটেরা গৃহবধুর স্বামীসহ ১২জনকে আসামী করে নবীনগর থানায় ২টি মামলা দায়ের করেন। গতকাল মঙ্গলাবার (১/১০) এলাকায় ঘুরে  জানা গেছে, উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের বানিয়াচং গ্রামের সাজেন্ট রফিকুল ইসলাম মানিক ২০০১ সালে অবসরে যান। এরপর শ্যামগ্রাম বাজারে রাশিদা স্টীল এন্ড ফার্নিচার নামের একটি বিপনিবিতান পরিচালনা করছেন। মানিক অভিযোগ করে বলেন, ‘গ্রামের সরকার বাড়ির এক বধু কে মোল্লাবাড়ির মান্নান মিয়ার ছেলে বাছেদ মিয়া শ্লীলতাহানি করে।  আমি শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বাড়িতে চল-বল্লম  (টেটা) রেখে পুলিশ দিয়ে হয়রানি করছে এবং আমাকে বিভিন্নভাবে ফাঁসাতে উঠেপড়ে লেগেছে।

ওই্ বধুর স্বামী মোঃ রানা মিয়া গত ৭ সেপ্টেম্বর থানায় একটি মামলা করেন । এ মামলা করায় বখাটেরা কয়েকদিন পর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর চালায় । এ ঘটনায় আরো একটি মামলা করেন তিনি ।  গৃহবধুর স্বামী অভিযোগ করে বলেন, ‘৩ সেপ্টেম্বর আমার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানী করে বাছেদ মিয়া, আমরা তার বিচার চাইছি বাছেদের পিতার কাছে, আর বিচার না পাইয়া থানায় একটি মামলা করছি, পরে উল্টা হেরাই (তারা) দুইডা মামলা দিয়া দিছে।’

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জাফর বলেন, ‘বানিয়াচং এর ঘটনায় উভয় পক্ষের চারটি মামলা এফআইআর হয়েছে আরো দুটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, মামলাগুলোর তদন্ত চলছে।’

এব্যাপারে শ্যামগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন বলেন, ‘সেনা কর্মকর্তা মানিক সাহেব গৃহবধুর পক্ষ নেওয়ায় মান্নান মিয়া ও তার ছেলেরা ষড়যন্ত্র করে তাঁকে ফাঁসানোর চক্রান্ত করছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares