Main Menu

সন্তানকে দুধ খাওয়ানো হলোনা মায়ের

+100%-

নবীনগর থেকেঃ এক সন্তানের জননী স্বপ্না বেগম। পবাত্র ঈদ উপলক্ষে বেড়াতে আসেন পিত্রালয়ে। চেয়েছিলেন জঠরজাত আদরের সন্তানকে দুধ বানিয়ে খাওয়াতে। কিন্তু সেটি অার হয়ে ওঠেনি, তার আগেই করুণ পরিণতির শিকার হয়ে স্বপ্নময় এ পৃথিবী ছেড়েই চলে যেতে হলো দুগ্ধজাত সন্তানকে একাকী ফেলেই। চরমতম মর্মান্তিক ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা এলাকার।

৯ জুন রোববার রাতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা নেয়ার পথে মারা যাওয়া স্বপ্না বেগম (২৪) নবীনগর উপজেলার কাইতলা দক্ষিণ ইউনিয়নের কাইতলা পশ্চিমপাড়ার ইউনুস মিয়ার মেয়ে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। নিহতের পরিবার, এলাকাবাসী এবং পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এক সন্তানের জননী স্বপ্না বেগম ঈদ উপলক্ষে পিত্রালয়ে বাড়িতে বেড়াতে আসেন। রোববার দুপুরে নিজের সন্তানের জন্য দুধ গরম করতে করতে চুলায় যায় স্বপ্না। দুধ গরম করাকালে বেখেয়ালে নিজেরই গায়ের ওড়নায় চুলার আগুন লেগে যায়। একপর্যায়ে সেই আগুন লেগে যায় তার পুরো শরীরে। চিৎকার- চেচামেচি শুনে অাশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে স্বপ্নাকে উদ্ধার করলেও ততোক্ষণে দগ্ধ হয়ে যায় তার পুরো শরীর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বপ্নাকে নিকটবর্তী কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করায়। অবস্থার অবনতি ঘটায় কর্তব্যরত চিকিৎসক অগ্নিদগ্ধ স্বপ্নাকে ঢাকায় পাঠান।

রাতে ঢাকায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। নবীনগর থানাধীন শিবপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসঅাই) মো. অাবদুর রহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,’নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares