Main Menu

নবীনগরে মসজিদে তাবলিগ জামাত দু- গ্রুপের হাতাহাতি

+100%-

নবীনগর প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে তাবলিগ জামাত মুসল্লিদেরকে মসজিদ থেকে বের করে দেওয়ায় ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার (০৬/০৪) এস আর মসজিদে দুই গ্রুপের মধ্যে তর্কাতর্কি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, দুপুরে নবীনগর এস আর মসজিদে জোহরের নামাজের পর বয়ান দেওয়া সময় তাবলিক পহৃী একটি গ্রুপের এক সদস্য ওই বয়ান মোবাইলে রেকড করছিলেন। তা দেখে অপর গ্রুপ বাধাঁ দিলে তর্কাতর্কি ও হাতহাতি শুরু হয়। তাবলিকের আরেকটি গ্রুপ দাবী করেন এস আর মসজিদের খতিব উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ায় করনেই এ ঘটনার সুত্রপাত ।
সুত্র জানায়, নিজামউদ্দিন বাংলাওয়ালী বিশ্ব মার্কাজ মসজিদ এর বিশ্ব আমীর হযরত মাওলানা সাদ অনুসারী দিল্লি থেকে তাবলিকের একটি দল দ্বীন ইসলামের দাওয়াত দিতে বাংলাদেশের নবীনগর উপজেলায় আসে।ওই তাবলিকের দলটি শুক্রবার দুপুরে টিএনটি পাড়ার মসজিদের অবস্থান নেয়। জুম্মার নামাজের পর তাবলিক জামাত এর মুসল্লিরা বয়ান দেওয়ার সময় তাবলিকের অপর একটি বিদ্রেুহী গ্রুপ ‘আলমি সুরা গ্রুপ’ এর নবীনগরস্থ এক নেতা হাজী সিদ্দিক ও তার ছেলে রহমতউল্লার নেতৃত্বে একটি দল তাদের বাঁধা দেয়। তাদের কাফের আখ্যায়িত করে নানাহ অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে মসজিদ থেকে বের করে দেয়া হয়।

পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য বিদেশ থেকে আগত তাবলিক গ্রুপকে পাশ্ববর্তী নিমতলী মসজিদে স্থানান্তর করেন। পরে আগত নিমাজউদ্দিন বাংলাওয়ালী বিশ্ব মার্কাস মসজিদ এর বিশ্ব আমীর হযরত মাওলানা সাদ অনুসারী নবীনগর নেতৃবৃন্দ এ ঘটনা তীব্র নিন্দা ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং তাদের উপর অন্যায় অবিচারের সুষ্ঠু বিচারের মাধ্যমে তাদের নিরাপত্তাসহ উপজেলায় দ্বীন ইসলামের দাওয়াত দিতে এবং কাজ করতে সকল সুবিধা প্রদানের দাবী জানান। বিকেলে নবীনগর এস আর মসজিদে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ সভায় তারা এ দাবী করেন। তারই জের ধরে গতকাল দুপুরে বয়ান রেকর্ড কে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্য এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়ে বিদেশ থেকে আগত টিমের নেতা মোঃ এমায়েদ খান, আবুল হোসেন, মোঃ মহিউদ্দিন, ইকরাম হোসেন, মো. জালাল মিয়া তাবলিক মুসল্লিরা সম অধিকার নিশ্চত করে এর বিচার দাবী করেন।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নবীনগর সার্কেল চিত্ত রঞ্জন পাল জানান উভয় পক্ষকে ডেকে এনে সমস্যা সমধান করা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares