Main Menu

২৫ সংসদীয় আসনের সীমানা পরিবর্তন

+100%-

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী আসনের সীমানা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এতে ৩০০ সংসদীয় আসনের মধ্যে থেকে ২৫টির সীমানায় পরিবর্তন আনা হয়েছে।

৩০ এপ্রিল, সোমবার দুপুর দুইটার দিকে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। এ সময় কমিশনার মো. রফিকুল ইসলামও উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনের আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও চার কমিশনারদের নিয়ে সচিবালয়ে এ বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে চলতি বছরের ১৪ মার্চ ৩০০ আসনের মধ্যে ৪০টি আসনে পরিবর্তন এনে প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। প্রাথমিক তালিকা প্রকাশের পর ৬০টি আসনের ওপর দাবি/আপত্তি/সুপারিশ/মতামত আসে। এই আপত্তি/সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে ২১, ২৩, ২৪ ও ২৫ এপ্রিল শুনানি অনুষ্ঠিত হয় কমিশনে। শুনানি শেষে ২০১৩ সালের ৩০০ আসনের মধ্যে ২৫টির পরিবর্তন এনে নির্বাচনী সীমানা চূড়ান্ত করে কমিশন।

২৫টি পরিবর্তিত আসন হলো, নীলফামারী-৩, নীলফামারী-৪, রংপুর-১, রংপুর-৩, কুড়িগ্রাম-৩, কুড়িগ্রাম-৪, সিরাজগঞ্জ-১, সিরাজগঞ্জ-২, খুলনা-৩, খুলনা-৪, জামালপুর-৪, জামালপুর-৫, নারায়ণগঞ্জ-৪, নারায়ণগঞ্জ-৫, সিলেট-২, সিলেট-৩, মৌলভীবাজার-২, মৌলভেীবাজার-৪, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬, কুমিল্লা-৬, কুমিল্লা-৯, কুমিল্লা-১০, নোয়াখালী-৪ ও ৫।

গত ১৪ মার্চ প্রকাশ করা প্রাথমিক তালিকায় পরিবর্তন এনে ২০১৮ সালে প্রকাশ করা কমিশন যে ৪০টি আসনে পরিবর্তন এনে প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করে তার মধ্যে বেশকিছু আসনে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। চূড়ান্ত তালিকায় পরিবর্তন নিয়ে আসে এমন আসনের সংখ্যা ১৭টি। সেগুলো হলো: পাবনা-১, পাবনা-২, মাগুরা-১, মাগুরা-২, সাতক্ষীরা-৩, সাতক্ষীরা-৪, ঢাকা-২, ঢাকা-৩, ঢাকা-৭, ঢাকা-১৪, ঢাকা-১৯, শরীয়তপুর-২, শরীয়তপুর-৩, কুমিল্লা-১, কুমিল্লা-২, চট্টগ্রাম-৭ ও কুমিল্লা-৮।

বর্তমান কমিশন দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই বলে আসছিল, নির্বাচনী আসনে বড় ধরনের পরিবর্তন নিয়ে আসবে। এ দিকে নির্বাচনী সংলাপে আওয়ামী লীগ ২০১৩ সালের আসনের সীমানা অপরিবর্তিত রাখার পক্ষে মত দিয়েছিল।

প্রাথমিক তালিকায় ৪০ আসনে পরিবর্তন আনার পরও শুনানি শেষে ১৭টি আসনের ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্তে স্থির থাকতে পারেনি কমিশন। এ রকম পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগের চাপে কমিশন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কি না, সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়ার হয়। এর উত্তরে কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, আওয়ামী লীগের চাপে নয়, শুনানিতে উপস্থাস্থিত বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়েই এই পরিবর্তন আনা হয়েছে।সৃত্র: প্রিয়ডটকম






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares