Main Menu

শিক্ষামন্ত্রী ৮৫০ জন পবিত্র হজ্বে গমনেচ্ছু অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীগণকে কল্যাণ ও অবসর ভাতার ৭১ কোটি ০৭ লক্ষ টাকার সুবিধা প্রদান

+100%-

পবিত্র হজ্ব ও তীর্থ গমনেচ্ছু অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীগণকে অনলাইন ব্যবস্থায় বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট এবং অবসর সুবিধার টাকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রদান করা হয়। এ উপলক্ষে কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ড যৌথভাবে ব্যানবেইস মিলনায়তনে ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব জনাব মোঃ সোহরাব হোসাইন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মোঃ গোলাম ফারুক, বাংলাদেশ শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোঃ ফসিউল্লাহ। বক্তব্য রাখেন শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান আলম সাজু ও অবসর সুবিধা বোর্ডের সচিব অধ্যক্ষ শরীফ আহমদ সাদী।
অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি অনলাইন ব্যবস্থায় ২০১৯ সালে হজ্ব গমনেচ্ছু ৮৫০ জন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীদের মধ্যে মোট ৭১ কোটি ০৭ লক্ষ টাকার কল্যাণ ও অবসর ভাতা প্রদান করেন। এসময় তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চাঁদপুরের সদর, চট্টগ্রামের সদর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ এবং কিশোরগঞ্জের সদর উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও অনলাইনে টাকা প্রাপ্ত শিক্ষকদের সাথে কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীগণ এক সময় কোন সুযোগ সুবিধা পেতেন না। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে গত ১০ বছরে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীদের কল্যাণ ও অবসর সুবিধা বাবদ প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা প্রদান করেছে। কল্যাণ ও অবসর সুবিধা দ্রুত প্রাপ্তির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ১৬২৭ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ প্রদান করেছেন। এছাড়াও ৫% ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা চালু করেছেন। তিনি পবিত্র হজ্ব যাত্রীদের নিকট মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও দেশবাসীর জন্য দোয়া কামনা করেন।
শিক্ষা উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন শিক্ষাবান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর শিক্ষক কর্মচারী ও দেশবাসীকে আস্থা রাখার জন্য অনুরোধ করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ দ্রুত উন্নয়নের পথে অগ্রসর হচ্ছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares