Main Menu

দেবগ্রাম সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় : জামিনে এসে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

+100%-

মোঃজুয়েল, আখাউড়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরশহরের দেবগ্রাম সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে স্কুল চলাকালীন সময়ে ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রীর স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করেন ঐ বিদ্যালয়ের সহকারী ইংরেজি শিক্ষক পলাশ মিয়া(৪০)।পলাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার পাকশিমুল গ্রামের মৃতঃ হায়দার আলীর ছেলে।
ছাত্রীর শ্লীলতাহানির দ্বায়ে আখাউড়া থানায় অভিযোগ করেন ছাত্রীর পিতা ফারুক মিয়া। পরে আখাউড়া থানা পুলিশ বিদ্যালয়ে অভিযান চালিয়ে শিক্ষক পলাশ কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন।

ছাত্রীর পিতা ফারুক মিয়া বলেন, বিদ্যালয়ের শ্রেণীর কক্ষে আমার মেয়ের স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয় শিক্ষক পলাশ মিয়া। পরে শ্রেণী কক্ষের ছাত্রীরা তার প্রতিবাদ করে। এর আগেও তিনি এরকম জঘন্য কাজে লিপ্ত ছিলেন। আদালতের দেয়া সাজা ভোগের পরে সে আবারো এই বিদ্যালয়ে পূণঃবহাল থাকে। আমি মাননীয় প্রধান মন্ত্রী এবং আইনমন্ত্রীর কাছে তার বিচার চাই।

স্থানীয়রা জানান, কয়েক বছর আগে ছাত্রীর সাথে অবৈধ কাজ করার দায়ে তাকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো। এছাড়া সে অনেক মেয়েদেরকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। ইজ্জত ও মানসম্মানের ভয়ে অনেক মেয়েরাই মুখ বুঝে সহ্য করে নেয় তার নষ্টামি । কেউ কেউ আবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মাহফুজুর রহমান কে ও দোষারোপ করছে ছাত্রীদের ইভটিজিং করে বলে।দেবগ্রামবাসী এমন অপরাধের দৃস্টান্ত মূলক বিচার ও শাস্তি কামনা করেন।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রসুল আহমেদ নিজামী বলেন, শ্লীলতাহানির অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা শ্লীলতাহানির মামলা প্রক্রিয়াধীন। আগামীকাল তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares