Main Menu

ক্যান্সার আক্রান্ত শিশু জামিলার চিকিৎসায় সাহায্য প্রার্থনা

+100%-

চার বছরের ছোট্ট শিশু জামিলা।দেখলে সহজে বোঝার উপায় নাই যে সে মরনব্যাধী ক্যান্সারে আক্রান্ত।

বলছিলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার মোগড়া ইউনিয়নের ধাতুর পহেলা গ্রামের মুজিবুর রহমানের(৪৫)একমাত্র মেয়ে জামিলার(০৪)কথা।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, করুন এক চিত্র।দুইবেলা দুমুঠো ভাতের জোগাড় করাই যেখানে কঠিন সেখানে লক্ষ টাকার চেয়ে বেশি টাকা খরচ করে মেয়ের চিকিৎসা করা যেন অসম্ভব হতদরিদ্র এই পরিবারের পক্ষে ।দুচালা টিনের চালের একটি ছোট্ট
মাটির ঘরেই বসবাস জামিলা(০৪),তার মা বাবা আর ৩ভাইয়ের। ভিটের যায়গাটি ছাড়া আর কোন যায়গা জমি নাই হতভাগা জামিলার পিতামাতার।কিভাবে মেয়ে জামিলার চিকিৎসা করাবেন তা বলতে গিয়ে বারবার চোখের জল বের হয়ে যাচ্ছিল জামিলার মায়ের।জামিলার মা বলেন,বিত্তবানরা যদি সহযোগিতা করে তাহলে আল্লাহর রহমতে আমার মেয়ের চিকিৎসা করাতে পারবো। তা না হলে চিকিৎসার অভাবে আমার মেয়ে মারা যাবে।ক্যান্সারে আক্রান্ত ০৪ বছরের শিশু জামিলার মায়ের প্রশ্ন সরকারি অ্যাম্বুলেন্স কি টাকা ছাড়া আমার মেয়েকে নিবে?

উল্লেখ্য যে,গত দুই বছর যাবৎ শিশু জামিলার চোখের সমস্যা ছিল। বর্তমানে ঢাকা জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। প্রতিমাসে একটি করে কেমো থেরাপি দিতে হয় জামিলাকে।এক একটি কেমোথেরাপির মূ্ল্য ১০হাজার টাকা। প্রফেসর ডাক্তার সাখাওয়াত আরা শাকুর মিলি জামিলার বাবাকে জানিয়েছে, জামিলার চোখে টিউমার থেকে ক্যান্সার এর রূপ ধারণ করেছে। ১ মাস অন্তর অন্তর ৬ মাসে মোট ৬ টি কেমোথেরাপি দেওয়ার পর অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চোখ তুলে ফেলে দিতে হবে জামিলার‌।এদিকে লকডাউন এর কারণে জামিলার বাবা অটোরিকশা নিয়ে বাহিরে যেতে পারছে না। পুলিশ অটো আটক করে থানায় নিয়ে যায় করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধে। ঘরে খাবারের খুব সংকট।খাবারের অভাবে
একবেলা খেয়ে আরেকবেলা না খেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে তারা। একদিকে খাবার জোগাড় করতে পারছে না অন্যদিকে জামিলার চিকিৎসার জন্য প্রতি মাসে দশ হাজার টাকা করে জোগাড় না করতে পারলে বাঁচানো যাবেনা শিশু জামিলা কে।

ডাক্তার ফোন দিয়েছে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য কিন্তু টাকার যোগাড় যে এখনো হয়নি, অ্যাম্বুলেন্স এর টাকাই বা কে দিবে? জামিলার মা সংবাদকর্মীকে বলেন আপনি বলে দেখেন অ্যাম্বুলেন্স এর ড্রাইভার আমার ভাড়া মওকুফ করবে কি? ভাই টাকা দিতে পারবোনা বলে আমার মেয়ের চিকিৎসা কি হবে না? তাই সমাজের বিত্তবান লোকদের কাছে অর্থ সহায়তা চেয়েছেন জামিলার বাবা মজিবর এবং মা আসমা বেগম। তাদের দাবি ৫০০ টাকা ১০০০ টাকা অনেকের কাছে কিছুই না কিন্তু তাদের জন্য তার বাচ্চা জামিলার জন্য হতে পারে লাইফ সাপোর্ট।স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মেয়র,চেয়ারম্যান ও সংসদ সদস্যের কাছে ও
সাহায্য কামনা করেন জামিলার পিতামাতা। এ বিষয়ে ধাতুর পহেলা গ্রামের মেম্বার আল আমিন জানান,গ্রামবাসীদের নিয়ে আমরা আলোচনা করে সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি।

ক্যান্সার আক্রান্ত জামিলাকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা,আসমা বেগম(জামিলার মা)বিকাশ পার্সোনাল 01746372947