Main Menu

আখাউড়ায় বিশ্বজিৎ পালকে সংবর্ধনা

+100%-

দৈনিক কালের কণ্ঠের সেরা জেলা প্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবুকে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। আখাউড়া প্রেসক্লাব ও রিপোর্টার্স ইউনিটি যৌথভাবে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সংর্বধনার আয়োজন করলেও তা গণসংর্বধনায় পরিণত হয়। বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ এতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দৈনিক কালের কণ্ঠ ও পত্রিকাটির ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধির প্রশংসা করেন।

প্রেস ক্লাব সভাপতি মো. মানিক মিয়ার সভাপতিত্বে ও রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারন সম্পাদক সমীর চক্রবর্তীর উপস্থাপনায় এতে বক্তব্য রাখেন, আখাউড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোসলেম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান, পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোশারফ হোসেন তরফদার, অ্যাডভোকেট উম্মে শবনম মোস্তারি মৌসুমী, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. আবুল কাসেম ভূঁইয়া, মো. মনির হোসেন বাবুল, মো. সেলিম ভূঁইয়া, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পিয়ারা আক্তার পিওনা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি খ আ ম রশিদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি আল-আমীন শাহীন, কুমিল্লার সাংবাদিক নঈম আজাদ, নবীনগরের সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু, আখাউড়া রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি আব্দুল মমিন বাবুল। আগত অতিথিবৃন্দ ও উপস্থিত সুধীজন সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবুর হাতে ক্রেস্টসহ বিভিন্ন উপহার তুলে দেন। এছাড়া ‘বিশ্বজিৎকে ভালোবাসা’ শিরোনাম লেখা বড় কাগজে নিজেদের অনুভূতির কথা ব্যক্ত করেন সুধীজন।

এদিকে সংর্বধনা অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি আখাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিএনপির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোসলেম উদ্দিন বলেছেন, ‘বিশ্বজিৎ পাল বাবু সাংবাদিকতার পেশায় কালের কন্ঠের সেরা জেলা প্রতিনিধির যে স্বীকৃতি বা পুরস্কার পেয়েছেন তাতে তার মধ্যে কাজের অনুপ্রেরণা জোগাবে। দায়িত্ববোধ আরো বেড়ে যাবে। কাজের সততা, নিষ্ঠা ও স্বচ্ছতার জন্যই বিশ্বজিৎ এই সাফল্য পেয়েছেন। এই সাফল্যে আমরাও আনন্দিত।’ তিনি আখাউড়া উপজেলার মাদকদ্রব্য বন্ধের জন্য সাংবাদিকদের বিশেষ ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামান বলেছেন, ‘সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবু সব জায়গায় সেরা। বিশেষ করে পেশাগত দায়িত্বে সবার সেরা। উপজেলার সাংস্কৃতিক অঙ্গন থেকে শুরু করে সবখানে সেরাদের মত তার বিচরণ।’ তিনি বিশ্বজিৎ পাল বাবুর উত্তররোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল বলেছেন, ‘সাংবাদিক বিশ্বজিৎ পাল বাবু একজন সৎ মানুষ। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশক হিসাবে অনেক সুনাম রয়েছে তার। পেশাগত কাজে শতভাগ সততার কারনে আজ বিশ্বজিৎকে বিশাল সাফল্য এনে দিয়েছে।’ আমি পৌরবাসীর পক্ষ থেকে বিশ্বজিৎ পাল বাবুকে প্রানঢালা অভিনন্দন জানিয়ে তাঁর ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করছি।

আখাউড়া থানার অফির্সাস ইনচার্জ মোশারফ হোসেন তরফদার বলেছেন, ‘সৎ সাহসি সাংবাদিকতার উজ্জ্বল নক্ষত্র বিশ্বজিৎ পাল বাবু। তিনি আদর্শবাদী ও আপোষহীন সাংবাদিকতার অগ্রদূত।’ তিনি বিশ্বজিৎ পাল বাবুর সাফল্য তুলে ধরে অভিনন্দন জানান।
সম্মানিত অতিথি সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের আইনজীবী উম্মে শবনম মোস্তারী মৌসুমী বলেছেন, ‘সাংবাদিকতার পেশার সাথে আইনপেশার খুব মিল রয়েছে। এই পেশার লোকজন শতভাগ স্বাধীন। এখানে কারো খবরদারী করার সুযোগ না থাকায় সৎ থাকা খুব সহজ।’ তিনি আরো বলেন, ‘আখাউড়া উপজেলার সাংবাদিকদের সাথে আমার খুব ভালো সম্পর্ক রয়েছে, তাদের আমি ভালোবাসি, তারাও আমাকে ভালোবাসেন।’ তিনি বিশ্বজিৎ পাল বাবুকে তার সাফল্যের জন্য অভিনন্দন জানান।

বিশ্বজিৎ পাল বাবুর সংর্বধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আল আমীন শাহীন, সাধারন সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পি, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হালিম হেলাল, আখাউড়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক ড. অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ ভুইয়া বাদল, উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান ভূঁইয়া, দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জালাল উদ্দিন, সড়ক বাজার ব্যবসায়ি পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির খোকা, প্যানেল মেয়র ফাতেমা বেগম, কাউন্সিলর মো. মানিক মিয়া, বাবুল সর্দার, শিশু মিয়া, মিলি আক্তার, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ডা. খোরশেদ আলম, আব্দুর রউফ, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি মনির খান, সাধারন সম্পাদক আবু কাউছার ভুইয়া, যুবলীগ নেতা আবু কাউছার, আখাউড়া রাধামাধব আখড়ার সভাপতি সুবল চন্দ্র ঘোষ, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি হিরালাল সাহা, আখাউড়া স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, শিক্ষক দেবব্রত বণিক, মাহফুজুর রহমান, মৌসুমী আক্তার, লোকনাথ সেবাশ্রমের পূজারি আশীষ ব্রহ্মচারি, আখাউড়া যুবদলের সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন, যুবলীগ নেতা মো. মনির হোসেন, ওমর ফারুক নাজির হোসেন, শিপন হায়দার, সাইফুল ইসলাম, ছাত্রলীগের সভাপতি তানজিল শাহ তচ্ছন, সাধারন সম্পাদক মো. শরীফুল ইসলাম, ইউপি মেম্বার মো. হান্নান, ছাত্রলীগ নেতা শাখাওয়াত হোসেন নয়ন, শাহবুদ্দিন বেগ শাবলু প্রমুখ।

সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের কুমিল্লা প্রতিনিধি ইমরুল, সাংবাদিক নাইম আজাদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের ব্রাহ্মণাবড়িয়া জেলা প্রতিনিধি মোশারফ হোসেন বেলাল, সাংবাদিক শাহজাহান সাজু, জিটিভির ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জহির রায়হান, বাংলাদেশ প্রতিদিনের কুমিল্লা প্রতিনিধি মহিউদ্দিন মোল্লা, আখাউড়া সাংবাদিক দুলাল ঘোষ, জুটন বনিক, মো. নুরুন্নবী ভুইয়া, মো. রাকিবুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন জলিল, বাদল আহম্মেদ খান, জহিরুল ইসলাম সাগর, মো. জালাল হোসেন মামুন, মোজাম্মেল হক, রতন পারভেজ।
সংবর্ধনা সভায় বিশ্বজিৎ পাল বাবু বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে মানুষ এসেছে আমাকে শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানাতে। মানুষ আমাকে এতটা ভালোবাসে জানতাম না। এতোট সম্মান আমাকে দিবে বুঝতে পারিনি। আমি সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বিশ্বজিৎ তার বক্তৃতায় আরো বলেছেন, সাংবাদিকতার পেশায় আমার মা সবসময় অনুপ্রাণিত করেগেছেন, কখনো বাধা দেয়নি। স্ত্রীও অনুপ্রাণিত করছে তাই আমি কর্মক্ষেত্রে পর্যাপ্ত সময় দিতে পারছি তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি। সেই সাথে দুইবার সেরা জেলা প্রতিনিধি নির্বাচিত করায় দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকা ও কালের কন্ঠ পত্রিকার সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে উপস্থিত সবার উদ্দেশ্যে বলেছেন জীবনে শুধু সত্যই বলে যাবো।

অনুষ্ঠানে আখাউড়া প্রেসক্লাবকে ক্রেষ্ট দিয়ে সম্মান জানান আখাউড়া হীরাপুর আসাদিয়া মুসলিম উদ্দিন হাফিজিয়া মাদ্রাসার পক্ষে উপদেষ্ঠা ডা: খুরশেদ আলম।



« (পূর্বের সংবাদ)



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares