Main Menu

টমেটোর দাম না পেয়ে হতাশ কৃষক

+100%-

সারোয়ার হাজারী পলাশ :
সারোয়ার হাজারী পলাশ :

সারোয়ার হাজারী পলাশ : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরের টমেটো চাষিরা এখন বিপাকে পড়েছে। প্রতি একর জমি টমেটো চাষ করতে এলাকার কৃষকদের প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়। আবাদের লক্ষ্য মাত্রা অতিক্রম করে বিশাল এলাকায় টমেটোর চাষ ও অধিক উৎপাদনের ফলে আশাতীত দাম পাচ্ছে না কৃষকরা। মৌসুমের শুরুতে শতাধিক কৃষক টমেটো বিক্রি করে লাখ পতি হয়ে ভাগ্য বদল করলেও বর্তমানে কৃষকদের লোকসান গুণতে হচ্ছে। বর্তমানে উপজেলার সিঙ্গারবিল, চান্দুরা, হরষপুরসহ প্রায় সবগুলো বাজারেই প্রতি মণ টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৮০ টাকা। যাতে জমি থেকে টমেটো উত্তোলনের পয়সাও সংগ্রহ হচেচ্ছনা কৃষকদের। আবাদের খরচ তো দুরের কথা আবার কোনো কোনো কৃষক বাজারে নিয়ে আসার পরে জমা খরচের পয়সা দেওয়ার ভয়ে টমেটো ফেলে চুপিসারে চলে যাওয়ার আলামতও লক্ষ্য করা যায়। কেউ কেউ বিক্রিত পয়সায় জমি থেকে টমেটো উত্তোলন ও বাজার পর্যন্ত পরিবহনের খরচ মেটানো যাবে না ভয়ে জমি থেকে টমেটো উত্তোলন করেনি। জমিতেই পচে নষ্ট হচ্ছে শত শত মণ টমেটো। মৌসুমের শুরুতে ওই এলাকায় টমেটোর চাষিরা প্রতি কেজি টমেটো ১শ থেকে ১শ ২০ টাকায় বিক্রি করলেও বর্তমানে ১শ ৫০ টাকায় ৩ মণ টমেটো  বিক্রি হচ্ছে।

টমেটো চাষি সিঙ্গারবিল গ্রামের আলমগীর মিয়া জানান, প্রথম অবস্থায় ৮০ টাকা কেজি টমেটো বিক্রি করলেও বর্তমানে ২ মণ টমেটো বিক্রি করেও ১শ টাকা পাইনি। প্রতি মণ টমেটো জমি থেকে উত্তোলন করতে ২০ টাকা ও রিক্সা ও ভ্যান সহ অন্যান্য পরিবহনে বাজারে নিয়ে  যেতে আরও ২০ টাকা খরচ হয়। অনেক কৃষক সাবলম্বী হওয়ার আশায় ঋণ কর্জ ও ধার করে টাকা এনে টমেটোর চাষ করেছে। কিন্তু বর্তমানের অবস্থা দেখে ঘরে থাকা গরু ও সামান্য স্বর্ণালঙ্কার বিক্রয় করে ঋণ পরিশোধ করছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares