Main Menu

বিজয়নগরে ঘর নির্মানকে কেন্দ্র করে হামলায় আহত-৫০,আটক ৩০ ।। দোকান ভাংচুর ও লুটপাট

+100%-
মো,জিয়াদুল হক বাবু ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে সড়কে ঘর নির্মানে বাঁধা দেওয়ার জের ধরে দু পক্ষের হামলায় প্রায় ৫০ জন আহত হয়েছে এবং কয়েকটি বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট হয়েছে। এসময় পুলিশ ৩০ জনকে আটক করেছে।
শনিবার (০৮ আগস্ট) বিকেল ৩ টায় উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের মনিপুর বন্দরবাজার এলাকায় এ হামলা ও দোকান ভাংচুর ও লুটতরাজের ঘটনাটি ঘটেছে।
জানা যায়, উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের আতকাপাড়া গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী লিলু ও একই গ্রামের গনু মিয়ার ছেলে মাদক ব্যবসায়ী সুহেল শেখ হাসিনা সড়কে ঘর নির্মান করতে গেলে স্থানীয় মেম্বার বাধা দেয় এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে নালিশ দেন। পত্তন ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ সেলিম মিয়া ও পত্তন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বাঁধা দিয়ে আসছে। এতে তাদের উপর ক্ষুব্ধ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী লিলু (৪০) ও সুহেল (৩০) সহ তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা। সম্প্রতি মাদক ব্যবসায়ী লিলু মনিপুর দুলি বাড়ি সংলগ্ন শেখ হাসিনা সড়কের কিছু অংশ দখল করে ঘর নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সেলিম মিয়া রাস্তার জায়গা দখল করে ঘর তুলতে বাঁধা দেয়। এসময় সেলিম মেম্বারের সাথে মাদক ব্যবসায়ী লিলু ও সুহেলের বাকবিতণ্ডা হয়। পরে রাস্তা দখল করে ঘর নির্মাণের বিষয়টি উপজেলা ভূমি অফিসকে অবগত করেন সেলিম মেম্বার।
আজ শনিবার দুপুরে সড়কের জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণের বিষয়টির সত্যতা যাচাই করতে উপজেলা ভূমি অফিস থেকে সরজমিনে তদন্ত করতে যায় সার্ভেয়ার।তদন্ত শেষে ঘটনাস্থল থেকে সার্ভেয়াররা চলে আসলে মাদক ব্যবসায়ী লিলু ও সুহেল তার দলবল নিয়ে মনিপুর বন্দরবাজারে ইউপি ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলামের দোকানে প্রথমে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট করে আরো কয়েকটি দোকানে ভাংচুর ও লুটতরাজ চালায়।এতে সাইফুল ইসলামের পিতা মোঃ সাচ্চু মিয়া (৫০), সেলিম মেম্বার (৪৮), তিতাস মিয়া (৪২), মাহফুজ মিয়া (৪২), শাহীন মিয়া (৩০), দেলোয়ার হোসেন (২৮), ছুট্টন মিয়া (৫২) সহ ৩০ জন আহত হয়।
এব্যপারে বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো,আতিকুর রহমান জানান,তারা মাদক ব্যবসায়ী কিনা আমি জানিনা, ঘর করাকে কেন্দ্র করে দু পক্ষের হামলায় কয়েক জন আহত হয়েছে এবং ঘটনাস্থল থেকে ৩০ জনকে আটক করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।