Main Menu

পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরে আশুগঞ্জে ধনাঢ্য ব্যবসায়ী খুন ॥ মহিলা আটক

+100%-

শামীম উন বাছির : পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে এক ব্যবসায়ী খুন হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার রাতে আশুগঞ্জের সোনারামপুর এলাকায়। নিহতের নাম সালাম খান-(৫০)। তিনি উপজেলার সোহাগপুর গ্রামের হাজী মোঃ আলম খানের ছেলে ও আশুগঞ্জের বিশিষ্ট ধান-চাউল ও জাহাজ ব্যবসায়ী। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় সোনারামপুর এলাকার পদ্মা রাইচ মিলের মাঠে সালাম খানের লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করে। পুলিশ লাশের পাশ থেকে একটি ছুরি, নিহতের মোবাইল সেট, চশমাসহ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত কিছু মালামাল উদ্ধার করেছে। খুনের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে জাহানারা বেগম-(৪০) নামে এক মহিলাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।
নিহতের স্ত্রী নাছিমা খান জানান, গত মঙ্গলবার ভোরে সালাম খান আশুগঞ্জ বাজারের বাসা থেকে ঢাকায় যান। সন্ধ্যা ৭টায়  তার সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, ঢাকা থেকে আশুগঞ্জে এসে পৌছেছেন। রাত ৯টায় তার মোবাইলে ফোন কর হলে রিসিভ করেননি। এরপর থেকে নিঁেখাজ ছিলেন তিনি। নাছিমা খান আরো বলেন, একই এলাকার ইকবাল মিয়ার সাথে পাওনা টাকা নিয়ে তার বিরোধ চলে আসছিল। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইকবালের টাকা দেওয়ার কথা ছিল।
নিহতের চাচাতো ভাই ও দূর্গাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জিয়া করিম খান সাজু বলেন, পাওনা টাকা নিয়েই বিরোধের জেরেই আমার ভাই খুন হয়েছে। তিনি বলেন, আমার ভাই নিখোঁজের পর থেকেই ইকবাল মিয়া পলাতক। তিনি বলেন, ধারনা করছি পাওনা টাকার জন্যই জাহানারা বেগম ইকবাল  আমার ভাইকে খুন করেছেন।
এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রার্প্ত কর্মকর্তা গোলাম ফারুক জানান, নিহতের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে জাহানারা বেগমকে আটক করা হয়েছে। ইকবালকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares