Main Menu

৫৬৭ কোটি টাকায় ২য় ভৈরব রেলসেতু

+100%-

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: ভারতের ঋণ সহায়তায় বাংলাদেশ রেলওয়ের উদ্যোগে দ্বিতীয় ভৈরব রেলসেতু নির্মাণ করা হবে। ৫৬৭ কোটি ১৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ভারতীয় দুটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ৯৮২ মিটারের এ রেলসেতুটি নির্মাণ করবে। প্রতিষ্ঠান দুটি হচ্ছে- ইরকন ও এফকনস।

মঙ্গলবার রেলভবনে ভারতের এ দুই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের চুক্তি সই হয়।

বাংলাদেশ রেলওয়ের পক্ষে মহাব্যবস্থাপক (প্রকল্প) মোজাম্মেল হক ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠান দুটির পক্ষে ইরকনের মহাব্যবস্থাপক (ব্যবসা ও উন্নয়ন) যোগেশ চন্দ্র মিশ্র চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এ সময় রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, ‘এ রেলসেতুটি বাংলাদেশের রেলওয়ের জন্য মাইলফলক। ঢাকা-চট্টগ্রাম রেললাইন ডাবল করার কাজ চলছে। পুরো অংশ ডাবল লাইন হলে ঢাকা-চট্টগ্রামের যোগাযোগ আরও সহজতর হবে। এক্ষেত্রে এ সেতুটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রেলসচিব আবুল কালাম আজাদ, ভারতীয় হাইকমিশনার পঙ্কজ শরণ, রেলওয়ের মহাপরিচালক আবু তাহের, ভারতীয় রেলওয়ের উপদেষ্টা চন্দ্রিমা রায় প্রমুখ।

চুক্তির আওতায় এ সেতুটি স্বাক্ষরের পর ৩০ মাসের মধ্যে নির্মাণের কথা রয়েছে। সে অনুযায়ী ২০১৫ সালের মার্চের মধ্যে এ সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হবে। ভারত সরকারের ঋণে এ সেতুটি বাস্তবায়ন হবে।

সেতুটির দৈর্ঘ্য হবে ৯৮২ মিটার। এর সঙ্গে সংযোগ রেললাইন হবে ২ দশমিক ৮২ কিলোমিটার। এ সংযোগ সড়কটি ভৈরব বাজার থেকে আশুগঞ্জ রেল স্টেশন পর্যন্ত হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares