Main Menu

"মাদক ব্যবসায়ীরাও চায় না তাদের সন্তান মাদক গ্রহণ করুক"

ভাল কাজের স্বীকৃতি পেলে দায়বদ্ধতা বাড়ে—–বনমালী ভৌমিক

+100%-

স্টাফ রিপোর্টার: পুলিশ সুপার হিসেবে পেশাগত কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল(পিপিএম) প্রাপ্তি অবশ্যই গর্বের। এটি তার কাজের যথাযথ মূল্যায়ন বলে আমি মনে করি। পেশাগত কাজের স্বীকৃতি পেলে দায়বদ্ধতা বাড়ে তাই সমাজ দেশ ও জাতীর জন্য কিছু করা প্রয়োজন। ছক অনুযায়ী আগামী দিনগুলিতে পথ চলতে হবে বলে মন্তব্য করেন তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অতিরিক্ত সচিব বনমালী ভৌমিক।

বৃহস্পতিবার সন্ধায় দ্বিতীয়বারের মত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম সেবা পদক পাওয়ায় আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের আয়োজনে প্রশংসিত কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, যে প্রতিশ্রুতি ও কাজের কারনে মিজানুর রহমান পিপিএম এই সংবর্ধণা পেয়েছেন সেই কাজ তাকে চালিয়ে যেতে হবে। এই সংবর্ধণার মাধ্যমে তার জন্য আগামী দিনগুলির জন্য একটি ছক একে দেয়া হলো। ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর কাছে তার দায়বদ্ধতা আরো বেড়ে গেল বলে আমি মনে করি।

এসময় সংবর্ধিত অতিথি পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, পেসিডেন্ট পুলিশ পদক আমার জন্য বড় অর্জন হলেও এর সকল কৃতিত্ব ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সকলের। জেলার সকল মানুষের সহযোগীতায় আমি এতটুকু এগোতে পেরেছি। বিশেষ শিশুদের নিয়ে তিনি বলেন, সমাজের বিশেষ শিশুদের নিয়ে কিছু করার পরিকল্পনা রয়েছে। সকলের সহযোগীতা নিয়ে আমি তাদের জন্য কিছু করতে চাই।

মাদকের বিরুদ্ধে হুসিয়ারী উচ্চারণ করে তিনি বলেন, জেলায় কোন মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেয়া হবে না। মাদক ব্যবসায়ীরাও চায় না তাদের সন্তান মাদক গ্রহণ করুক। তাই সকলের উচিৎ মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলা। আমি এই জেলায় যতদিন আছি মাদক ব্যবসায়ীদের রেহাই নাই।

আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি সেলিম পারভেজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সর্বিক মো. বশিরুল হক, আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমিরুল কায়ছার, সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী, আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবরে সাধারণ সম্পাদক মো. সাদেকুল ইসলাম সাচ্চু, আশুগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান হাজী আনিসুল রহমান, চরচারতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জিয়াউদ্দিন খন্দকার, মুক্তিযোদ্ধা মো. জাহাঙ্গির খন্দকার, আওয়ামীলীগ নেতা হেবজুল বারী প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক ও মো. শফিকুল ইসলাম।

আলোচনা সভা শেষে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নাসির আহমেদ এর সৌজন্যে বনমলী ভৌমিক এর সহধর্মীনি কণ্ঠশিল্পী রাখি ভৌমিক, ঢাকা থেকে আগত সেরাকণ্ঠ ২০১০ এর শিল্পী লুইপা, ম্যাজিক বাউলিয়ানার দিপা, ক্লোজআপ ওয়ান শিল্পী গামছা পলাশ, ম্যাজিক বাউলিয়ানার শিল্পী কণা, সহ বিভিন্ন শিল্পীরা গানে গানে মাতিয়ে তুলেন পুরো অনুষ্ঠান।



« (পূর্বের সংবাদ)



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares