Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জাগো ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবকদের এক ব্যতিক্রম দিন

+100%-

২৫শে মার্চ। স্বাধীনতা দিবস। আজ সারাদিনব্যাপী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জাগো ফাউন্ডেশনের একটি অঙ্গ সংগঠন ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার প্রায় ২০জন স্বেচ্ছাসেবক আশুগঞ্জে দ্বীপে অবস্থিত ‘চর সুনারামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের’ শিশুদের সাথে বিভিন্ন খেলাধুলা, প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্টান, নাচ-গানসহ দিনটি উদযাপন করেন। অনুষ্ঠানে স্যানিটেশন স্বাস্থ্যসম্মতভাবে ব্যবহার, পরিষ্কার পানি খাওয়া সহ আরো সচেতনতামূলক বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। দ্বীপটি আশুগঞ্জের চরে অবস্থিত।

অনুষ্ঠান চলাকালীন ছাত্র ও স্বেচ্ছাসেবকরাসহ দ্বীপটি ছিল উৎসব মুখর। দ্বীপটির প্রাইমারী স্কুলের সবাই জেলে পরিবারের। অনুষ্ঠানে তাদের চোখ মুখ ছিল সারা জাগানো হাসি। যেন এক একটি হাসি ছিল পৃথিবীর শ্রেষ্ট হাসি। অনুষ্ঠানে গান নাচ ছাড়াও ছিল, চিত্রাংঙ্কন, দৌড়, দড়ি লাফ, চামচ দৌড়, যেমন খুশি তেমন সাজ সহ আরো অনেক কিছু। চিত্রাংঙ্কন প্রতিযোগিতায় যার যেই রকম খুশি এঁকেছিল। তার মধ্যে কেউ এঁকেছিল কুঁড়েঘর, কেউ এঁকেছিল নিজের বাবার মাছ ধরার ছবি, কেউ এঁকেছিল পুরো দ্বীপটি, আবার কেউবা এঁকেছিল এই দেশের মানচিত্র, শহীদ মিনার, স্মৃতি সৌধ, শেখ মুজিবর সহ আরো অনেক কিছু। কিছু কিছু ছবির মধ্যে তাদের হাজারো আনন্দের মাঝে বাস্তব জীবনের কষ্টগুলোও ফুটে উঠেছিল।

ভালবাসার এই অনুষ্ঠানে আমরা তাদের বাস্তব আনন্দ দেখে অনেক কিছু উপলব্ধি করেছি, শুনেছি তাদের জীবন কাহিনী, বড় হয়ে কি হবে সেই স্বপ্নের কাহিনী, দেখেছি তাদের আনন্দ জোড়া চোখ। আবেগ জড়ানো মুখে তারা বলেছিল কেউ গায়ক হবে, কেউ বড় হয়ে শহরে যাবে, কেউ আবার স্বপ্ন দেখে বড় হয়ে ডাক্তার, শিক্ষক সহ আরো অনেক কিছু। উক্ত অনুষ্ঠানে ঐ স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা সহ স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যে উপস্থিত ছিল তারেক আজিজ, কাজল সূত্র ধর, সোহান মিয়া, এনামুল হক রাজিব, ফারলিন আক্তার কিরন, ফাহিমা হক সুমনা, রোজিনা আক্তার সহ অন্যান্য স্বেচ্ছাসেকগন।

অনুষ্ঠান শেষে তাদের বিভিন্ন রকমের পুরষ্কার বিতরন করা হয়েছিল।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares