Main Menu

আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের ‘বি’ গ্রেড অক্ষুন্ন রাখতে আল্টিমেটাম

+100%-

আশুগঞ্জ প্রতিনিধি :আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের মর্যাদা রক্ষায় সরকারকে আল্টিমেটাম দিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। স্টেশনটিকে ‘বি’ গ্রেড থেকে ‘ডি’ গ্রেডে নামানোর প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত সভায় এ আল্টিমেটাম দেয়া হয়।

গত মঙ্গলবার দুপুরে স্টেশনের প্ল্যাটফরমে আশুগঞ্জ উপজেলাবাসীর উদ্যোগে আয়োজিত এ সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারাসহ নানা শ্রেণি-পেশার হাজারো মানুষ অংশ নেন। সভায় আলাল শাহ্ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঈশা খানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন মঈন, আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু আসিফ আহমেদ, আশুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু নাছের আহমেদ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহানা বেগম, আশুগঞ্জ সার কারখানা সিবিএ সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোবারক আলী চৌধুরী, হেফজুল বারী, হাজি সাঈদুর রহমান, মোশারফ হোসেন মুন্সি, শাহীন শিকদার, চর চারতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউদ্দিন খন্দকার, আশুগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন, দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল করিম খান সাজু, আড়াইসিধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম মিয়া, চর চারতলা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আয়ূব খান, আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি সেলিম পারভেজ, সাধারণ সম্পাদক সাদেকুল ইসলাম সাচ্চু, হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হুমায়ুন কবির, উপজেলা যুবলীগ নেতা ইলিয়াস আলী, আতাউর রহমান কবির, হাসানুজ্জামান হাসান, মুনির হোসেন, উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতা আব্দুর রউফ, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আজিজুর রহমান জজ মিয়া, সমন্বিত সাংস্কৃতিক বিকাশ কেন্দ্রের সভাপতি আলমগীর কবির, সাবেক সভাপতি ডা. আব্দুল আল মাহমুদ নজরুল, জেলা ট্রাক মালিক শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি ঈদন মিয়া মিন্টু, অটো রিকশাচালক শ্রমিক নেতা তানশেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কায়ছার, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আলমগীর হোসেন ফরহাদ, জয়নাল, আশুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মারুফ আহমেদ রনি প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আশুগঞ্জে রাষ্ট্রীয় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। নানা কারণে গুরুত্বপূর্ণ এ স্টেশনটিকে ‘বি’ গ্রেড থেকে ‘ডি’ গ্রেডে নামানো কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। স্টেশনটিকে আগের গ্রেডে ফিরিয়ে আনতে আগামী ৩ জুলাই আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হবে। সরকার যদি আশুগঞ্জবাসীর দাবি মেনে না নেয় তাহলে ১৫ জুলাই আবারো স্টেশনের প্লাটফরমে প্রতিবাদ সভা করে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

উল্লেখ্য, আশুগঞ্জ উপজেলায় বিদ্যুৎকেন্দ্র, সারকারখানা, নৌবন্দর, সাইলো ও গ্যাস কমপ্রেসার স্টেশনসহ বেশ কিছু রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। প্রতিদিন আশুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে দুটি আন্তঃনগর ও দুটি কমিউটার ট্রেনসহ বেশ কয়েকটি মেইল ট্রেনযাত্রা বিরতি করে। তবে ‘ডি’ গ্রেডে নামিয়ে দেয়ার কারণে শুধু টিকিট বুকিং অফিস ছাড়া আর কিছুই থাকবে না স্টেশনটিতে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares