Main Menu

আশুগঞ্জে গৃহবধূ হত্যার অভিযোগ : স্বামী ও শ্বশুর পলাতক

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ শহরে গৃহবধূকে হত্যার পর লাশ ফেলে পালিয়েছেন স্বামী ও শ্বশুর।

শনিবার ভোরে আশুগঞ্জ শহরের শরীয়তনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গৃহবধূ তানজিনা হবিগঞ্জ জেলার লাখাই উপজেলার শিবপুর গ্রামের রেনু মিয়ার মেয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লাখাই উপজেলার শিবপুর গ্রামের ফারুক মিয়ার ছেলে সোহাগের সঙ্গে ৬ বছর আগে বিয়ে হয় তানজিনার।

তানজিনার বাবা রেনু মিয়ার অভিযোগ, সোহাগ প্রায়ই তার মেয়ে তানজিনাকে যৌতুক আনার জন্য মারধর করতেন। মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে গত দুইমাস আগে ৫০ হাজার টাকা দেই।

তারপরও আমার মেয়ের শেষ রক্ষা হল না। আমি এ খুনের জন্য সোহাগ ও তার বাবার মায়ের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক ভক্ত চন্দ্র দত্ত বলেন, সুরতহাল রির্পোটে নিহতের গলায় ও ঘাড়ের পেছনে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে শুক্রবার রাতে গলা টিপে হত্যা করা হয়েছে।লাশ ময়নাতন্তের জন্য জেলাসদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

এব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ওসি মো. বদরুল আলম তালুকদার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares