Main Menu

আশুগঞ্জে ইউএনও’র উদ্যোগে শেষ হলো কাচারী বিথীকার প্রাথমিক সংস্কার ও উন্নয়ন কাজ॥

+100%-

নিজস্ব প্রতিবেদক॥  অবশেষে আশুগঞ্জ শহরের কাচারী বিথীকার বেহাল অবস্থার প্রাথমিক সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে। আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী বাইন হীরার উদ্যোগে পুকুরের চার পাশ্বে ভেঙ্গে যাওয়া সড়কের সংস্কার কাজ সম্পন্ন হয়। এ ছাড়া অকেজো ল্যামপোষ্ট গুলোর মেরামত ও নতুন করে আরো বেশকিছু ল্যামপোষ্ট লোগানো হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাচারী বিথীকার উন্নয়ন কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন। তিনি জানান, আগামী সেপ্টেম্বরে কাচারী বিথীকার উন্নয়নে ২০লক্ষ টাকা ব্যায়ে ইজিবি টেন্ডারের মাধ্যমে পুকুরে চারপাশ্বে ঢালাই দিয়ে রাস্তা নির্মান ও ঝুকিপূর্ণ স্থানে রিটানিং ওয়াল নির্মান করা হবে। সেই সাথে একটি দৃষ্টি নন্দন ঘাটলাও নির্মানের সিদ্ধান্ত নেন। পুকুরের চারপাশে বিভিন্ন টিনসেড ঘরের চালের পানি ও ভবনের নিস্কাসিত পানি পাইপ দিয়ে রাস্তার উপর পড়ে রাস্তার মাটি সড়ে রাস্তা গুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এতে করেই পুকুরের চারপাশের রাস্তা গুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে। তাই পুকুরে চারপাশে গড়ে উঠা ভবন ও ঘরের মালিকদের সতর্ক করে চিঠি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। যদি কেউ এ সিদ্ধান্ত অম্যান্য করে পাইপ দিয়ে পুকুরের রাস্তার উপর পানির ফেলান তাহলে কঠোর অইন আনুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া পাইপ প্রস্র্রাব করা, ময়লা আবর্জনা ফেলানো নিষেধ করেন। এসময় আশুগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ সালাহ উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মারুফ রনি, আশুগঞ্জ নাগরিক সমাজের সাধারন সম্পাদক ইসহাক সুমন, উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তার সিএ কামরুল হাসানসহ স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ।
উল্লেখ্য, আশুগঞ্জ শহরের কাচারী পুকুর পাড়ে চারপাশে পায়ে হাটার রাস্তা ও কফি হাউজটি প্রতিষ্ঠা করেন আশুগঞ্জের সাবেক উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা ও বর্তমানে সিলেট জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সন্দ্বীপ কুমার সিংহ। এরফলে চারপাশে পায়ে হাটার রাস্তায় স্থানীয় এলাকাবাসী প্রাতভ্রমন, বসে মুক্ত, নির্মল বাতাস উপভোগ করা এখন এ স্থানীয় প্রিয় স্থানটি হিসিবে রূপান্তরিত হয়েছে। সেই সাথে মনোরম পরিবেশে কফি হাউজে বসে আড্ডা দেয়া। সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বদলী হওয়ার পর দীর্ঘদিন কাচারী বিথীকার সংস্কার না করায় পুকুরের চারপাশের রাস্তার বিভিন্ন অংশে ভেঙ্গে গিয়েছিল। এ পর্যায়ে পুকুরের চারপাশে হাটা দুস্কর হয়ে পড়েছিল। কাচারী বিথীকার বেহাল অবস্থার বিষয়টি বর্তমান উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা মৌসুমী বাইন হিরা জানতে পেরে তিনি কাচারী বির্থীকা পরির্দশন করে উন্নয়নের দায়িত্ব নেন তিনি। সেই সাথে প্রাথমিক সংস্কার কাজ শুরু করেন এবং শেষ করেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares